Widget by:Baiozid khan
  • Advertisement

পুঠিয়ায় পিঠা বিক্রি করে সংসার চালায় আব্দুল খালেক

Published:2013-12-20 18:21:52    

পুঠিয়া(রাজশাহী)প্রতিনিধি: রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলার বানেশ্বর ইউনিয়নের নামাজ গ্রামের মৃত জাবের আলীর ছেলে আব্দুল খালেক ১৫ বছর থেকে বিভিন্ন রকমের পিঠা বিক্রি করে আসছে।

পিঠা বিক্রির রোজগার দিয়ে সংসার পরিজন নিয়ে জীবনযাপন করছে সে। তার বাড়ি হতে হাফ কিলোমিটার দুরে বানেশ্বর বাজারে প্রতিদিন বিকাল থেকে চলে পিঠা বিক্রি।

বিকালে পিঠা খাবার জন্য স্থানীয়রা ভীড় জমায়। অনেকেই নিয়মিত ভাবে তার পিঠার দোকানে বিকালে নাস্তা করে। তার তৈরী পিঠা অনেক স্বাদের বলে জানিয়েছেন ক্রেতারা।

পিঠা তৈরীতে এলাকায় তার যথেষ্ট সুনাম রয়েছে। বিকাল থেকেই আরম্ভ হয় তার দোকানে পিঠা তৈরী। গরম গরম ভাপা পিঠা খাবার জন্য অনেকেই অপেক্ষা করেন সেখানে।

ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামের লোকজন কে তার দোকানে পিঠা খেতে দেখা যায়। পিঠা বিক্রির পর সকালে সে কামলার কাজ করে থাকেন।

আব্দুল খালেক জানান, প্রথম দিকে শবজি ব্যবসা আরম্ভ করলেও পরবর্তীতে পিঠার ব্যবসা আরম্ভ করেন। এ ব্যবসার মাধ্যমে তার সংসারে স্বচ্ছলতা  এসেছে বলে তিনি জানান।

এক সময় সংসারে অভাব-অনটন থাকলেও এ ব্যবসার রোজগারে সংসারের অভাব অনেকটাই দূর হয়েছে। তার দোকানে সাতপুথি ও ভাপা পিঠা বেশী বিক্রি হয়। অনেকেই তার দোকান থেকে পিঠা কিনে বাড়িতে ছেলে-মেয়েদের জন্য নিয়ে যায়।

প্রতিদিন তার দোকানে এক থেকে দেড় হাজার টাকার পিঠা বিক্রি হয় বলে জানান আব্দুল খালেক। তার দুই ছেলে ও দুই মেয়ে। স্ত্রী সন্তানদের নিয়ে স্বচ্ছল ভাবেই জীবনযাপন করছেন তিনি। তার একটি ইটের বাড়ি নির্মানের স্বপ্ন রয়েছে। পিঠা ব্যবসার রোজগার দিয়ে ভবিষ্যতে সুন্দর একটি বাড়ি তৈরী করবেন বলে জানিয়েছেন।

বাংলাসংবাদ২৪/আলী/এমএস