Widget by:Baiozid khan
  • Advertisement

পঞ্চগড়ে ১৩ শ বছর আগের দুটি মন্দির আবিস্কার

Published:2014-01-26 19:45:40    

পঞ্চগড় প্রতিনিধি: পঞ্চগড়ের ভিতরগড় প্রত্নস্থল বাংলাদেশে এ যাবত প্রাপ্ত প্রাচীন দূর্গনগরীগুলির মধ্যে সর্ববৃহৎ। ভিতরগড় দূর্গনগরীতে ১৩০০ বছর আগের ৮ম শতকের আরও দুটি মন্দির আবিস্কৃত হয়েছে। এর আগে দুটি স্থাপনা ও ৪টি মন্দির সহ এ পর্যন্ত মোট ৮ টি স্থাপনা আবিস্কৃত হল এই দুর্গে।

নতুন এই মন্দির দুটি দেখার জন্য প্রতিদিন শত শত নারী পুরুষ ভীড় করছে। প্রত্নতত্ববীদ ড.শাহনাজ হোসনে জাহানের নেতৃত্বে একটি দল এই মন্দির দুটি আবিস্কার করে। নতুন মন্দির দুটির পুরো কাঠামো এখনো বের না হলেও খননের পর অংশ বিশেষ বের হয়ে এসেছে। পুরো মন্দির বের করতে আরও দু মাস সময় লাগতে পারে।

পঞ্চগড় জেলা শহর থেকে ১৬ কিলোমিটার দুরে ভিতরগড় দূর্গনগরী অবস্থিত। ২৫ কিলোমিটার জুড়ে এই দুর্গনগরী গড়ে উঠেছিল ১৩০০বছর আগে। কয়েক কিলোমিটার জুড়ে  ইট এবং মাটির তৈরী চার টি আবেষ্টনীর ভেতরে এই দূর্গনগরী। এর আগে ১ম আবেষ্টনীর ভেতরে ৬ষ্ঠ বা ৭ম শতকের ৩ টি, ৩ য় আবেষ্টনীর ভেতরে ৩টি স্থাপনা আবিস্কৃত হয়। বর্তমান আবিস্কৃত একটি মন্দির ২য় আবেষ্টনীর ভেতরে খালপাড়া এলাকায়। সেটি ৯ মিটার দীর্ঘ ও ৯ মিটার চওড়া। অন্য আরেকটি মন্দির ২য় আবেষ্টনী দেয়ালের বাইরে ঢিবিডাঙ্গা এলাকায়। এর দৈর্ঘ্য ২৫ মিটার এবং প্রস্থ ২০ মিটার। মন্দির দুটি নির্মানে ব্যবহৃত হয়েছে ইট,পাথর ও মাটি।

ইটের গঠন,আকৃতি এবং নির্মাণশৈলী বিবেচনায় রেখে নতুন আবিস্কৃত এই মন্দির দুটি ৮ম শতকে নির্মিত বলে ধারনা করছেন গবেষক ড. শাহনাজ হোসনে জাহান। তিনি ২০০৯ সালের জানুয়ারী থেকে ভিতরগড় দূর্গনগরীর উপর গবেষনা ও খননকাজে নিয়োজিত আছেন। প্রত্নতত্বে বাংলাদেশের প্রথম নারী ড. শাহনাজ হোসনে জাহান ভারতের পুনায় অবস্থিত ডেকান পোষ্ট গ্রাজুয়েট এন্ড রিসার্চ ইন্সটিটিউট থেকে পিএইচডি করেন এবং প্রত্নতত্বে বিশেষ অবদান রাখার জন্য ২০০৯ সালে “অনন্যা শির্ষদশ-২০০৮” পুরস্কারে ভুষিত হন।

ড. শাহনাজ হোসনে জাহান বলেন, ষষ্ঠো বা সপ্তম শতকে নির্মিত ভিতরগড় দূর্গনগরীতে ছিল সার্বভৌম প্রশাসন। গুরুত্বপূর্ণ প্রাচীন বাণিজ্য পথের উপর তৈরী এই দূর্গনগরীর সঙ্গে সিকিম,তিব্বত, ভুটান,চীন,নেপাল,বিহার,পশ্চিমবঙ্গ,ও পুন্ড্রবর্ধনের বানিজ্যিক যোগাযোগ ছিল। সড়ক ও নৌপথেও ছিল যোগাযোগ। আসাম,কোচবিহার, ময়নামতি,পাহাড়পুর, মহাস্থানগড় বা দিনাজপুরের আবিস্কৃত প্রত্নতত্বের নমুনার সঙ্গে ভিতরগড় দূগৃনগরীর প্রত্নতত্বের কোন মিল নেই। জনশ্রুতি আছে ভিতরগড় ছিল পৃথুরাজার রাজধানী। নিম্নশ্রেনীর কিচকদের বিদ্রোহ ও যুদ্ধঘোষনায় রাজা পৃথু মহারাজার দিঘীতে ডুবে সপরিবারে আত্নহুতি দেন।

ড. শাহনাজ হোসেন জাহান জানান ভিতরগড় প্রত্নস্থল বাংলাদেশে এযাবত প্রাপ্ত প্রাচীন দূর্গনগরীগুলির মধ্যে সর্ববৃহৎ। কিন্তু সরকারীভাবে এখনো এই দূর্গ নগরীকে হেরিটেজ সাইট হিসেবে ঘোষনা করা হয়নি। তিনি এই প্রত্নস্থল কে হেরিটেজ সাইট ঘোষনা করার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান। মুল্যবান প্রত্নসম্পদ রক্ষার জন্য স্থানীয় মানুষকেও এগিয়ে আসার জন্য আহ্বান জানান তিনি।


বাংলাসংবাদ২৪/এমআলী/মাক্কী

আরও সংবাদ