Widget by:Baiozid khan
  • Advertisement

গাড়িমুক্ত হচ্ছে ঢাকার দুই সড়ক

Published:2016-09-22 17:34:34    
আগামী বছরের মার্চের মধ‌্যে ঢাকার বনানী এবং মোহাম্মদপুরের দুটি সড়ক ‘গাড়িমুক্ত’ করার ঘোষণা দিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আনিসুল হক।
 
 
রাজধানীতে ধারণ ক্ষমতা অতিরিক্ত গাড়ি চলাচলকে যানজটের জন‌্য দায়ী করে বৃহস্পতিবার ‘বিশ্ব ব্যক্তিগত গাড়িমুক্ত দিবসে’ মানিক মিয়া এভিনিউতে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এই ঘোষণা দেন তিনি।
 
আনিসুল হক বলেন, মিরপুর-মোহাম্মদপুর এলাকায় একটি এবং গুলশান-বনানী এলাকায় একটি সড়ক গাড়িমুক্ত করা হবে। এগুলোতে তখন কেবল হেঁটে চলাচল করা যাবে।
 
গুলশান-বনানী এলাকায় বনানী সুপার মার্কেটের কাছের একটি সড়ক এজন‌্য নির্ধারণ করা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, “গাড়িমুক্ত করার জন্য নকশা প্রণয়নের কাজ শুরু হয়েছে। মিরপুর এবং মোহাম্মদপুরের রাস্তা খোঁজা হচ্ছে।”
 
আগামী বছর মার্চ মাস থেকে গাড়ি চলার ওই সড়ক দুটি ‘গাড়িবিহীন করবোই’, দৃঢ়তার সঙ্গে বলেন মেয়র।
 
যানজট নিরসনের প্রতিশ্রুতি দিয়ে দেড় বছর আগে মেয়র নির্বাচিত হওয়া আনিসুল হক ধারণ ক্ষমতার চেয়ে কয়েকগুণ বেশি যানবাহন থাকায় রাজধানীর যানজট নিয়ন্ত্রণ করা কঠিন বলে মন্তব‌্য করেন।
 
“ঢাকায় গাড়ির ধারণ ক্ষমতা ৩ থেকে ৪ লাখ। সেখানে যদি ১১-১২ লাখ যান থাকে তাহলে কীভাবে, কোন শক্তিতে, কোন মহামন্ত্রে এই শহরের যানজট ঠেকাব?”
 
সড়ক ব‌্যবস্থাপনায় শৃঙ্খলা আনতে তৎপর থাকা সড়ক পরিবহনমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের অনুষ্ঠানে বলেন, এখন নিজের কাজের সঙ্গী পেয়েছেন তিনি।
 
 
“আমি তিন বছর একা ফাইট করেছি এই শহরের জন্য। এখন আমি আরও দুজন মেয়রকে পেয়েছি, যারা এই শহরকে ভালো করতে চান।”
 
যানজটের দুর্ভোগ দূর করতে পরিকল্পিত ও সমন্বিত পদক্ষেপ নেওয়ার উপর জোর দেন মন্ত্রী।
 
“কেউ একা যানজট ও দুর্ঘটনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সফল হবে না।”
 
সড়ক দুর্ঘটনা নিয়ে একে অন‌্যকে দায়ী না করে সবাইকে একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি।
 
“আমি ব্লেইমটা শিফট করলাম আরেকজনের ঘাড়ে। আরেকজন আমার ঘাড়ে শিফট করল, এতে কিন্তু সমস্যার সমাধান হবে না। সবাই মিলে কাজ করতে হবে। আমার বিশ্বাস দুর্ঘটনাকেও আমরা নিয়ন্ত্রিত করতে পারব।”
 
সড়ক পরিবহন আইনে পরিবারপ্রতি গাড়ির ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ করার বিধান রাখা হবে বলেও জানান ওবায়দুল কাদের।
 
“প্রয়োজনে ব্যক্তিগত গাড়ি ব্যবহারের ওপর আমরা নিয়ন্ত্রণ আরোপ করব। আইনভঙ্গের বিরুদ্ধেও আরও কড়াকড়ি আরোপ করা হবে।”
 
 
‘বিশ্ব ব্যক্তিগত গাড়িমুক্ত দিবস’ উপলক্ষে সড়ক ও জনপথ বিভাগ, ঢাকা যানবাহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষসহ ৪৪টি সরকারি- বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের সম্মিলিত আয়োজনে এই অনুষ্ঠান হয়।
 
সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত মানিক মিয়া এভিনিউর অর্ধেকের একপাশে যান চলাচল বন্ধ করে এই অনুষ্ঠান হয়। তখন সেখানে বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষার্থীরা দাবা, লুডু খেলছিল, ওড়ানো হয় ঘুড়ি, সাইকেল চালায় নানা বয়সী মানুষ। ঢাকার রাজপথ জনবান্ধব করার জন্য সচেতনতামূলক নাটক ও গানও পরিবেশন করা হয়।
 
‘ওয়ার্ক ফর এ বেটার বাংলাদেশ’ এর কর্মসূচি ব‌্যবস্থাপক মারুফ হোসেনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে ঢাকা যানবাহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষের ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী পরিচালক মো. জাকির হোসেন মজুমদার, অতিরিক্ত নির্বাহী পরিচালক এ কে এম মাইনুদ্দিন এবং ঢাকা মহানগর ট্রাফিকের উপ-কমিশনার লিটন কুমার সাহা উপস্থিত ছিলেন।
 

আরও সংবাদ