Widget by:Baiozid khan
শিরোনাম:

ঢাকা Tue September 25 2018 ,

ঢাকায় চলবে সার্কুলার ট্রেন

Published:2017-05-01 10:32:18    
যানজট নিরসনে ঢাকায় চলবে সার্কুলার ট্রেন। এজন্য ঢাকা শহরের চতুর্দিকে বৃত্তাকার রেলপথ নির্মাণ করা হবে। স্ট্যান্ডার্ড গেজের ইলেকট্রিক মাল্টিপল ইউনিটের (ইএমইউ) ট্রেন চলবে সেই বৃত্তাকার রেলপথে। সকাল ৬টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত পর্যন্ত চলবে অত্যাধুনিক ট্রেন। যাত্রীরা স্মার্ট কার্ডের মাধ্যমে সার্কুলার ট্রেনে ভ্রমণ করতে পারবেন। রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. ফিরোজ সালাহ্ উদ্দিন এ প্রসঙ্গে গতকাল ইনকিলাবকে বলেন, রেলওয়ের ২৫ বছরের দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনার মধ্যে সার্কুলার ট্রেনের প্রকল্পটি আছে। প্রকল্পটি শুরু করার জন্য আমরা পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়কে ফিজিবিলিট স্টাডি করতে বলেছি। ফিজিবিলিটি স্টাডি শেষ হলে এটি অনুমোদনের জন্য পাঠানো হবে। রেল সচিব বলেন, সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করতে ৪/৫ বছর সময় লাগবে। প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে যানজট নিরসনে সার্কুলার ট্রেন রাজধানী ঢাকার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বাহন হবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। 
রেলওয়ে সূত্রে জানা গেছে, যানজট নিরসনে ঢাকা শহরের চারদিকে প্রায় ৮০ কিলোমিটার দীর্ঘ রেলপথ নির্মাণে ২০১৪ সালে একটি প্রকল্প হাতে নেয় রেলপথ মন্ত্রণালয়। সেই প্রকল্প শুরু করার জন্য একটি ফিজিবিলিটি স্টাডি করার জন্য পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়কে জানিয়েছে রেলপথ মন্ত্রণালয়। রেলওয়ে সূত্র জানায়, এই প্রকল্পের জন্য ঢাকার চারিদিকে বৃত্তাকার রেলপথ তৈরী করা হবে। রেলপথটি নারায়ণগঞ্জ জেলার রূপগঞ্জের তারাবো সেতু এলাকা থেকে শুরু হয়ে ইস্টার্ন বাইপাস, আবদুল্লাপুর, ডিএনডি বাঁধ, লালবাগ, পোস্তগোলা, কদমতলী হয়ে আবার তারাবো গিয়ে শেষ হবে। লেভেল ক্রসিংয়ের ঝামেলা এড়াতে পুরো রেলপথটি হবে এলিভেটেড (উড়ালপথে)। আর বৃত্তাকার এ রেলপথে স্টেশন থাকবে ৪০টি। ট্রেন চলবে স্ট্যান্ডার্ড গেজ ডাবল লাইনে বৈদ্যুতিক ব্যবস্থার (ইলেকট্রিক ট্র্যাকশন)। এজন্য ছয় বগিবিশিষ্ট ৩০ সেট ইলেকট্রিক মাল্টিপল ইউনিট (ইএমইউ) কেনা হবে। সকাল ৬টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত ৫ মিনিট পর পর দুই দিক থেকেই চলবে। আর সার্কুলার রেলপথের টিকিট ব্যবস্থায় ব্যবহার করা হবে স্মার্ট কার্ড। রেলওয়ে সূত্র জানায়, ঢাকার এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে, মেট্রোরেল, ফ্লাইওভারকে মাথায় রেখেই সার্কুলার রেলপথ তৈরী করা হবে। একই সাথে সার্কুলার রেলপথ রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ ও জনবসতিপূর্ণ স্থানগুলোর কাছাকাছি থাকবে। যাতে করে ওই সব এলাকা থেকে মানুষ সহজেই সার্কুলার ট্রেনে চড়ে গন্তব্যে যেতে পারে। প্রতি ৫ মিনিট পর পর সার্কুলার ট্রেন চলবে বলে এতে সারাদিন বহু যাত্রী পরিবহন করা যাবে। সার্কুলার ট্রেনে ঢাকার এক প্রান্ত থেকে আরেক প্রান্তে যেতে আধা ঘণ্টারও কম সময় লাগবে। 
 
এদিকে, ঢাকায় বৃত্তকার রেললাইনে ডাবল ডেকার ট্রেন চালুর সুপারিশ করেছে সংসদীয় কমিটি। গত সপ্তাহে সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত রেলপথ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ সুপারিশ করা হয়। এ সুপারিশের বিষয়ে কমিটির সভাপতি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী বলেন, ভবিষ্যতে ঢাকায় যখন সার্কুলার ট্রেন চালু হবে, তখন যেন ডাবল ডেকার ট্রেন চালু হয়, আমরা সেই সুপারিশ করেছি।

আরও সংবাদ