Widget by:Baiozid khan
শিরোনাম:

ঢাকা Sat September 22 2018 ,

পরিবেশ রক্ষার্থে সুইপারদের ভুমিকা

Published:2013-06-22 18:41:34    

ঢাকা : জন্মের পর থেকেই জানি নোংরা পরিস্কার করার জন্য সুইপারই একমাত্র ভুমিকা পালন করে আসছে। জীবনের প্রয়োজনে কিংবা অভাবের তাড়নায় সুইপাররা এই পেশায় এগিয়ে আসে। একবার ভাবুন তো এরা যদি এই পেশায় না আসতো তবে আমাদের দেশটি কি এতো সুন্দর থাকতো। ছবি দেখে মনে হবে এরা হয়তো ডোম জাতীয় কিংবা ম্যাথর জাতীয় কেউ। আসলে এরা আর কেউ নয়, এরা আমাদেরই কেউ একজন। এদের কারও নাম আরজু, কারো নাম আলমগীর আবার কারো নাম বিল্লাল।

রাজধানীর প্রায় প্রত্যেক রাস্তার নিচে ড্রেন রয়েছে। এই ড্রেন পরিস্কার করতে গিয়ে কখনো কখনো বিভিন্ন ধরনের ব্যবহৃত মালপত্র বের হয়ে আসে। আর সেগুলিকে যাচাই বাছাই করে কোনটিকে ফেলে দিচ্ছে আবার কোনটি বিক্রির জন্য বস্তায় তোলা হচ্ছে।

শুক্রবার রাজধানীর ইংলিশ রোডে এমনি একটি রাস্তার নিচের ড্রেন পরিস্কার করতে গিয়ে স্বপ্নের মতো পেয়ে যান অনেকগুলো ছোট-বড় বোতল। কোন দিন তারা কাজ করতে গিয়ে এতো বোতল কখনো পায়নি। কিন্তু এবার তারা পেয়েছে। বিল্লাল, আলমগীর ও আরজুর কাছ থেকে জানতে চাইলে তারা বলেন, আমরা খুব খুশি যে অনেকগুলো বোতল পেয়েছি, বিক্রি করে অনেক টাকা ভাগ পাবো।

বোতলগুলো কি হয় জানতে চাইলে তারা বলেন, বিক্রির পর বোতলগুলোকে প্রথমে কোম্পানির লোকেরা গরম পানিতে ধুয়ে নেয়। এরপর কারখানাতে কাটিং মেশিনে কেটে চুর্ণ-বিচুর্ণ করে। তারপর পাউডার বানিয়ে প্লাষ্টিকের কাচাঁমাল হিসেবে ব্যবহার করা হয়।

পরিবেশ রক্ষার্থে এ কাজ কি ভুমিকা পালন করতে পারে সে ব্যাপারে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ বিজ্ঞান অনুষদের পরিবেশবিদ অধ্যাপিকা তাহমিনা খানম বলেন, এটা খুবই ভাল দিক। তারা একই সাতে ড্রেন পরিস্কার করছে আবার আয়ের উৎস ও খুঁজে পাচ্ছে। তাছাড়া বোতলগুলি যদি বিক্রি না করতো তবে পরিবেশের মারাত্বক ক্ষতি হতো। অন্যদিকে বিদেশ নির্ভর কাচাঁমালের চাহিদা কমে যাচ্ছে।

বাংলাসংবাদ২৪/জিসান/এসএইচএস