Widget by:Baiozid khan
শিরোনাম:

ঢাকা Fri September 21 2018 ,

মৌলভীবাজারের চার আসনে প্রার্থীরা সরব

Published:2013-11-17 17:39:06    

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি: দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন ঘিরে সরগরম হয়ে উঠেছে মৌলভীবাজারের চারটি আসন। সম্ভাব্য প্রার্থীরা পোস্টার আর হুডিংয়ের মধ্য দিয়ে নিজেদের পরিচয় এলাকাবাসীর নিকট তুলে ধরার প্রতিযোগিতাসহ জনসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন।

এ দৌড়ঝাঁপে বর্তমান সংসদ সদস্যরাতো আছেন, পাশাপাশি নতুন মুখ এমনকি প্রবাসীও রয়েছেন। এবারের এ জাতীয় নির্বাচনে ভোটাররাও  নিজেদের সচেতনতার দিকে সতর্ক। ৯ম সংসদে মনোনীত এমপিরা তাদের (জনগণ) প্রতিনিধি হয়ে এলাকার, সমাজের সঠিক দায়িত্বশীলতার পরিচয় কতখানি দিয়েছেন নাকি নিজেদের উদর পূর্ণ করেছেন, তার হিসাবও কষে চলেছেন সাধারণ জনগণ। তবে যাইহোক ১০ম সংসদ নির্বাচনে ভিন্ন মাত্রা আর নতুনমুখ আসবে বলে চারটি নির্বাচনী এলাকার ভোটারদের সাথে আলাপচারিতায় এমন আভাস উঠে আসে।

জেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে, হালনাগাদ প্রকাশিত ভোটার তালিকানুযায়ী- ২৩৫ মৌলভীবাজার ১ (জুড়ী-বড়লেখা) :: ২৩২৩৬৯ জন ভোটার নিয়ে আসনটি। এতে পুরুষ ১১৪৭২৭, মহিলা ১১৭৬৪২। এ আসনে বর্তমান এমপি আওয়ামীলীগের মোঃ শাহাব উদ্দিন। তিনি দলীয় ইঙ্গিতে তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছেন।  ট্রাভেলস ব্যবসায়ী আবু মোহাইমিনের নামও শোনা যাচ্ছে। বিপরীত দিকে বিএনপির সহযোগী অঙ্গ সংগঠন জাসাসের জাতীয় নির্বাহী কমিটির সহসাধারণ সম্পাদক ও বড়লেখা উপজেলা বিএনপির সভাপতি দারাদ আহমদ অনেকদিন ধরে গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন। আবার সাবেক প্রতিমন্ত্রী এডভোকেট এবাদুর রহমান চৌধুরী এমপি প্রচারণায় রয়েছেন। এছাড়াও বড়লেখা উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি আহমেদ রিয়াজ এলাকায় সভা-সমাবেশের মাধ্যমে নিজেকে চাঙ্গা রেখেছেন।

২৩৬ মৌলভীবাজার ২ (কুলাউড়া-কমলগঞ্জ আংশিক) :: ২৮১০৯৬  জন ভোটার নিয়ে আসনটি। এতে পুরুষ ১৪০৭০৮, মহিলা ১৪০৩৮৮। এ আসনে মহাজোটের সমর্থন নিয়ে জাতীয় পার্টির বর্তমান এমপি এডভোকেট নওয়াব আলী আব্বাছ খাঁন। সদা হাস্যলাপী এ মানুষটি নিয়মিত নির্বাচনী এলাকার মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন। অন্যদিকে আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক, ডাকসুর সাবেক ভিপি ও এমপি সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমদ বিগত সংসদ নির্বাচনের পর থেকে নিরলসভাবে দলীয় নেতাকর্মীর পাশাপাশি বিভিন্ন স্তরের মানুষের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ চালিয়ে আসছেন। এছাড়া সাবেক বিএনপি নেতা ও স্বতন্ত্র এমপি এমএম শাহীন মাঠ গরমের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। বিপরীত দিকে ১৮দলীয় জোটের প্রধান বিএনপির এডভোকেট এএনএম আবেদ রাজা নিয়মিত নেতাকর্মীসহ এলাকার জনসাধারণের সাথে গণসংযোগ, দীর্ঘদিন ধরে যোগাযোগ করে আসছেন। প্রতিটি দলীয় কর্মসূচীতে বিশেষকরে হরতালে, তার সরব উপস্থিতির মাধ্যমে কঠোরভাবে হরতাল পালনসহ নানা কারণে দলীয় নেতাকর্মীর কাছে গ্রহনযোগ্যতা রয়েছে।

২৩৭ মৌলভীবাজার ৩ (সদর-রাজনগর) :: ৩৪৭৮৯৪ জন ভোটার নিয়ে আসনটি। এতে পুরুষ ১৭৪৩৩০, মহিলা ১৭৩৫৬৪। এ আসনে বিগত নির্বাচনে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য এবং প্রভাবশালী অর্থ ও পরিকল্পনামন্ত্রী মরহুম এম সাইফুর রহমান এমপিকে পরাজিত করে মহাজোটের প্রধান আওয়ামীলীগের বর্তমান এমপি সৈয়দ মহসীন আলী। সদা পরোপকারী এ মানুষটি নানাভাবে নির্বাচনী এলাকার কর্মকান্ডে নিজেকে জড়িয়ে রেখে উপস্থিত থাকছেন। অন্যদিকে প্রবাসী এম এ রহিম শহীদ মনোনয়নের দৌড়ে রয়েছেন। আওয়ামীলীগের জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক নেছার আহমদ উঁচু তলায় লবিং করে যাচ্ছেন । এর বাইরে আরও কেউ মাঠে আসতে পারেন বলে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। বিপরীত দিকে সাইফুর রহমানের জ্যেষ্ঠ পুত্র বিএনপির জেলা শাখার সভাপতি ও সাবেক এমপি এম নাসের রহমান একাংশের হয়ে নিজের উপস্থিতি সরব রেখেছেন। এছাড়া খেলাফত মজলিসের ও রাজনগর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আহমদ বেলালও ১৮ দলীয় প্রার্থী হতে চাইবেন বলে জানা গেছে।

২৩৮ মৌলভীবাজার ৪ (কমলগঞ্জ আংশিক-শ্রীমঙ্গল) :: ২৮৩৪৪৪ জন ভোটার নিয়ে আসনটি। এতে পুরুষ ১৪২০৫৫, মহিলা ১৪১৩৮৯। চা বাগান বেষ্টিত চা শ্রমিক আর হিন্দু সম্প্রদায় অধ্যুষিত এ আসনে মহাজোটের প্রধান আওয়ামীলীগের আশীর্বাদপুষ্ট টানা ৪ বারের নির্বাচিত বর্তমান চিফ হুইপ আলহাজ্ব উপাধ্যক্ষ মোঃ আব্দুস শহীদ এমপি । শহীদ নির্বাচনী এলাকায় নানান কর্মসূচীতে পুরোদমে উপস্থিতি দেখা গেছে। অন্যদিকে নানান কারণে আব্দুস শহীদ এমপি বাদ পড়তে পারেন এমন কামনায় শ্রীমঙ্গল উপজেলা চেয়ারম্যান রণধীর কুমার দেবের নাম মুখে মুখে বিশেষকরে চা শ্রমিকরা আওড়াচ্ছে। সুলতান মনসুরও এ আসনে লড়তে পারেন বলে উজ্জ্বল সম্ভাবনা রয়েছে। বিপরীতদিকে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আলহাজ্ব মুজিবুর রহমান চৌধুরী এবারও মনোনয়ন প্রত্যাশী। তবে বিভিন্ন কারণে তাঁর নিজ দলে কানাঘুষা রয়েছে। সাবেক এমপি আহাদ মিয়ার নাম শোনা যাচ্ছে। এছাড়া বাংলাদেশের রাজনীতিতে বর্তমানে হেফাজতে ইসলামের ভূমিকা নানা বিষয়ে আলোচিত। সেই হেফাজতে ইসলামের সমর্থন নিয়ে যুক্তরাজ্য প্রবাসী নূরে আলম হামিদি ১৮ দলীয় জোটের প্রার্থীতা চেয়ে কাজ করে চলেছেন।  সবদিক বিবেচনায় মৌলভীবাজারের ৪টি নির্বাচনী আসনের মধ্যে নানান বিষয়ে আলোচিত-সমালোচিত, সংসদীয় ২৩৮ আসনটিতে তুমুল মর্যাদার লড়াই হবে। এবারের লড়াইয়ে পরাজিত যেকোনো একজনের রাজনৈতিক মৃত্যু হবে বলে সচেতন এলাকাবাসী মনে করছেন।

 
বাংলাসংবাদ২৪/এস এ চৌধুরী/ইএফ

আরও সংবাদ