Widget by:Baiozid khan
  • Advertisement

পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করল আপন ছোট বোনকে

Published:2013-11-28 11:42:00    

বাংলাসংবাদ: ডাক্তার বানানোর কথা বলে আপন ছোট বোনকে দিয়ে পতিতাবৃত্তি করিয়েছে তারই বড় বোন। এমনই তথ্য বেরিয়ে আসে একুশে টেলিভিশনের একটি অনুসন্ধানি রিপোর্টে।

বার বছর বয়সী অন্তু জানিয়েছে, তার ইচ্ছার বিরুদ্ধেই দীর্ঘদিন ধরে তাকে এমন জঘন্য কাজ করিয়ে যাচ্ছে তার বড় বোন মাফিয়া। ঘটনাটি ঘটেছে রাজধানীর মালীবাগে। তাদের গ্রামের বাড়ি চাঁদপুরে।

বড় হয়ে ডাক্তার হবে, মানুষের সেবা করবে, পরিবারের অভাব ঘোচাবে, এমন হাজারো স্বপ্ন নিয়ে চাঁদপুর থেকে ঢাকায় বড় বোনের কাছে এসেছিলো অন্তু। কিন্তু আসার পর থেকে তাকে দিয়ে জোর পূর্বক যৌন ব্যবসা করতে থাকে তারই আপন বোর বোন।
গোপনীয়ভাবে এমন তথ্য জানার পর একুশে টেলিভিশন ঐ বাসায় উপস্থিত হলে অন্তুর বড়বোন এসব অভিযোগ অস্বীকার করে।
কিন্তু এক পর্যায়ে মাফিয়া তার অপকর্মের কথা অকপটে স্বীকার করে। সে জানায়, তার ছোট বোনের পড়ালেখার খরচ জোগানোর জন্য এ লাইনের সাথে যুক্ত হয়েছে সে।

জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান জানিয়েছেন, এটা স্পষ্ট মানবাধিকারের লংঘন।

ঘটনা জান্র পর পুলিশ এসে অন্তুকে উদ্ধার করে এবং মাফিয়াকেও গ্রেপ্তার করা হয়। অন্তু বড় বোনের বিরুদ্ধে একটি মামলাও করেন।

এদিকের অন্তুর মা জানিয়েছে, তার বড় মেয়ে পড়ালেখার কথা বলেই অন্তুকে ঢাকায় নিয়ে গেছে। কিন্তু এরপর কি হয়েছে তা সে জানে না।
নিজের মেয়ের কাছেই যখন মেয়ের নিরাপত্তা না থাকে, তাহলে সে এখন কার কাছে যাবে এটাই এখন পরিবারটির জিজ্ঞাসা।

এ বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী রক্সি ফাতেমা প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন, ‘মানুষ মনে করে তার নিরাপত্তার সর্বশেষ আশ্রয় হলো নিজের পরিবার। কিন্তু নিজ পরিবারেরই কেউ যখন তাকে এরকম জঘন্য অপকর্মের দিকে ঠেলে দেয়, তখন মানুষের নিরাপত্তার স্থান কোথায়?'

সায়মা আক্তার একজন গৃহিনী জানান, ‘বড় বোনরা সাধারণত মায়ের মতোই হয়ে থাকে। সেই বোন যখন বোনকে বেশ্যাবৃত্তিতে বাধ্য করে, তাহলে সেটা এক মানবতার বিপর্যয়ই বলা চলে।'

বাংলাসংবাদ২৪/টিআর 

আরও সংবাদ