Widget by:Baiozid khan
শিরোনাম:

ঢাকা Sun July 21 2019 ,

  • Techno Haat Free Domain Offer

সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহকে ট্রাইব্যুনালে হাজিরের নির্দেশ

Published:2013-11-28 13:37:31    

বাংলাসংবাদ২৪: আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের বিচারাধীন বিষয়ে মন্তব্য করায় আগামী ১ ডিসেম্বর সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহকে ট্রাইব্যুনালে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

একই সঙ্গে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী এবং চ্যানেল২৪ এর বিরুদ্ধে জারি করা আদালত অবমাননার অভিযোগের বিষয়ে শুনানির জন্য আগামী ২৪ ডিসেম্বর পরবর্তী দিন ধার্য করেছেন ট্রাইব্যুনাল।

বৃহস্পতিবার চেয়ারম্যান বিচারপতি এটিএম ফজলে কবীরের নেতৃত্বে গঠিত তিন সদস্যের ট্রাইব্যুনাল-১ এ আদেশ দেন।

আজ আদালতের কার্যক্রম শুরু হলে সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহর পক্ষে আইনজীবী তারিকুল ইসলাম এক সপ্তাহের সময় আবেদন করেন। এ সময় আদালত তাকে হাজির হতে ১ ডিসেম্বর দিন ধার্য করে দেন।

অন্যদিকে জাফরুল্লাহ চৌধুরী হাজির হয়ে আদালতকে বলেন, আমার অনেক গুরুত্বপূর্ণ কাজ থাকা সত্ত্বেও ট্রাইব্যুনালকে সম্মান দেখিয়ে এসেছি। এ সময় তিনি বিষয়টি দ্রুত নিষ্পত্তি করার আবেদন করেন।

ট্রাইব্যুনাল বলেন, আপনাদের দুই জনের বিষয় একই। আমরা চাচ্ছি এক দিনেই বিষয়টি শুনানি করতে। আপনি হাজির হলেও তিনি (মাহফুজ উল্লাহ) তো হাজির হননি। পরে ট্রাইব্যুনাল ২৪ ডিসেম্বর বিষয়টি শুনানির দিন ধার্য করেন।

গত ৬ নভেম্বর চ্যানেল২৪ এর বিরুদ্ধে আনীত আদালত অবমাননার জবাব দাখিল করেছেন তাদের আইনজীবী আসাদুজ্জামান। জবাবে তিনি বলেছেন, যে প্রক্রিয়ায় চ্যানেল২৪ এর বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগ আনা হয়েছে তা যথাযথ প্রক্রিয়ায় হয়নি।

তিনি বলেন, প্রসিকিউশন চ্যানেল২৪ এর কিছু পদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দাখিল করেছেন তাতে কোন ব্যক্তির নাম উল্লেখ করেননি। এটি একটি ভ্রান্ত ধারণা। এ ছাড়া গত ১০ অক্টোবর ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী ট্রাইব্যুনালে তার লিখিত জবাব দাখিল করেন এবং তিনি নিজে শুনানি করতে আবেদন করেন।

গত ২৬ সেপ্টেম্বর গণস্বাস্থ্যের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহ তলব করে ট্রাইব্যুনাল। ট্রাইব্যুনালের আদেশ মোতাবেক ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী হাজির হলেও সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহ দেশে না থাকায় তার আইনজীবী সময় আবেদন করেন।

গত ২৪ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার ট্রাইব্যুনালের রেজিস্ট্রারের কার‌্যালয় বরাবর প্রসিকিউশনের পক্ষ থেকে বেসরকারী চ্যানেল টোয়েন্টি ফোর কর্তৃপক্ষসহ ৮জনকে বিবাদী করে অভিযোগ দাখিল করা হয়।

প্রসিকিউটর জেয়াদ আল মালুম, তুরিন আফরোজ, সুলতান মাহমুদ সীমন, তাপস কান্তি বল, সাবিনা ইয়াসমিন খান মুন্নি ও রেজিয়া সুলতানা চমন এ আবেদন দাখিল করেন।

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল আইন ১৯৭৩ এর ১১(৪)ধারা মোতাবেক কেন তাদের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগ আনা হবে না তা, জানতে চেয়ে রুল জারির আবেদন করা হয়।
একই সঙ্গে তাদের অভিযুক্ত করে এক বছরের কারাদন্ড অথবা জরিমানা করার আবেদন করা হয়।

আবেদনে বাকী বিবাদীরা হলেন, চ্যানেল ২৪ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, নির্বাহী পরিচালক, হেড অব প্রোগ্রাম, মুক্তবাক নামন অনুষ্ঠানের প্রডিউসার এবং ওই অনুষ্ঠানের সঞ্চালক মাহমুদুর রহমান মান্না।

প্রসিকিউশনের অভিযোগে বলা হয়, গত ১৮ সেপ্টেম্বর চ্যানেলে২৪ এর রাত এগারটার ‘মুক্তবাক’ নামক টকশোতে ট্রাইব্যুনালের বিচার বিষয়ে এই মন্তব্য করেন।
 
টকশোতে ডা.জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, ‘বিচারপতি শামীম হাসনাইন সালাহউদ্দিন কাদের চৌধুরীর পক্ষে সাক্ষ্য দিতে চেয়েছিলেন। কিন্তু কেন তাকে দেয়া হয়নি। তাহলে কি বিচারের বানী নিভৃতে কাদঁবে না?’

এছাড়া টকশোতে সালাহউদ্দিন কাদের চৌধুরী সাফাই সাক্ষীদের নিয়ে মন্তব্য করারও অভিযোগ করে প্রসিকিউশন।

এসপি/আর

আরও সংবাদ