Widget by:Baiozid khan

ঢাকা Thu November 22 2018 ,

  • Advertisement

ছিট মহলে অপ্রতিরোধ্য প্রকাশ্য জুয়া ,অশ্লীল নৃত্য ও মাদকের মহোৎসব

Published:2013-12-31 20:33:59    

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি: কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী থানা পুলিশকে নিষ্ক্রিয় করে অপ্রতিরোধ্য ভাবে প্রতি রাতে অশ্লীল নৃত্য, জুয়া ও মদের আসর চালিয়ে যাচ্ছে কুখ্যাত আঃ জলিল সহ কতিপয় জুয়াড়ী।

অভিযোগ রয়েছে উক্ত থানার অফিসার ইনচার্জ প্রতিটি বোর্ড থেকে নাইট প্রতি ১০-১৫ হাজার টাকা চাঁদা নিয়ে থাকেন। যার কারনে পুলিশ জুয়াড়ীদেরকে কখনই খুঁজে পায় না। অব্যাহত ভাবে চলা অপ্রতিরোধ্য এই জুয়া ও মাদকে আসক্ত হয়ে অভাবী ও খেটে খাওয়া সাধারন মানষ গুলো নিঃষ্মেষ হয়ে পরছে।

জানা যায়, ফুলবাড়ী উপজেলার চান্দের বাজার এলাকার স্বনামধন্য জুয়াড়ী মোঃ আব্দুল জলিল অশ্লীল নৃত্য আর জুয়া খেলার মুল আয়োজক। আব্দুল জলিল স্থানীয় কিছু প্রভাবশালী যুবকদেরকে ব্যবহার করে ফুলবাড়ী উপজেলার সীমান্তবর্তী ছিট মহল ’দাশিয়ার ছড়া’ কালীরহাট নামক স্থানে দীর্ঘ দিন ধরে এই আসর পরিচালনা করে আসছে।

সমপ্রতি দাশিয়ার ছড়া ছিট মহলের পঞ্চায়েত মোঃ নজরুল ইসলাম ও মেম্বার মোঃ আব্দুল মোন্নাফ কালিহাটের জুয়া বন্দ করে দিলে পার্শ্ববতী একটি ফাঁকা জায়গায় স্থানান্তরিত করা হয়। এই জুয়া বন্ধে সংশ্লিষ্ট এলাকার কিছু সচেতন মানুষ পুলিশ প্রশাসন সহ বিভিন্ন দপ্তরে যোগাযোগ করেও কোন লাভ হয়নি। জুয়া চলছে, সেই সাথে অশ্লীল নৃত্য।   

এ ব্যাপারে ফুলবাড়ী উপজেলার অফিসার ইনচার্জ সাথে কথা হলে তিনি জানান, ছিট মহলের ভিতর জুয়া চলার কারনে আমাদের তেমন কিছুই করার থাকে না। অথচ প্রায় ৬মাস আগে ছিট মহলের অধিবাসী মোঃ জামরুল মিয়ার বাড়িতে ফুলবাড়ী থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে কয়েক শত বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করে।

এ ছাড়াও প্রায় একই সময়ে ছিট মহলের কসালের তল এলাকার মফিজুলের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ফেন্সিডিল উদ্ধার করে। সেই সাথে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে আবার ছেড়েও দেয়া হয়। ফুলবাড়ী থানা পুলিশ এধরনের অসংখ্য মাদক বিরোধী অভিযান দাশিয়ার ছড়া ছিট মহলে পরিচালনা করলেও যাত্রার নামে অশ্লীল নৃত্য ও জুয়ার ব্যাপারে তাদের সীমাবদ্ধতার কথা জানিয়ে মোটা অংকের টাকা তারা হাতিয়ে নিচ্ছেন। এ জুয়াড় আসরটি দীর্ঘ দিন ধরে থাকার কারনে একলাকাবাসী চরম হতাশা আবার কেউ কেউ সর্বশান্ত হয়ে আতংকে রাত কাটাছে।

রাজনৈতিক অস্থিরতা প্রাধান্য দেয়ায় থানা পুলিশ এসব ব্যাপারে মনোযোগে ঘাটতির কারনে সাধারন মানুষের মধ্যে ভীতিকর অবস্থা সৃষ্টি করছে। অবশেষে এলাকাবাসীর অভিযোগের ভিত্তিতে ফুলবাড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার শেখ বেলায়েত হোসেনের সাথে এ ব্যাপারে কথা হলে তিনি জানান, আমরা খবর পেয়েছি। তবে ভারতীয় ছিট মহলের অভ্যন্তরে হওয়ায় তাদেরকে ধরার ব্যাপারে আমাদের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। তার পরেও আমি পুলিশকে বারংবার তাগিদ দিয়েছি জুয়া বন্দের ব্যাপারে পদক্ষেপ নিতে। শুধু তাই নয় আমি এডিশনাল এএসপিকে বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য বলেছি। কিন্তু ফুলবাড়ির চান্দের বাজার এলাকার বাসিন্দা নাম করা বিশিষ্ট্য জুয়াড়ী মোঃ আব্দুল জলিলকে গ্রেফতার করা হলে ফুলবাড়ির অভ্যন্তরে ভারতীয় ছিট মহল দাসিয়ার ছড়ায় আর কোন জুয়া বা অশ্লীল নৃত্য হবে না বলে জানিয়েছেন অনেক ছিট মহলের অধিবাসী।

বাংলাসংবাদ২৪/মমিনুল ইসলাম/ইএফ

আরও সংবাদ