Widget by:Baiozid khan
  • Advertisement

এবার ভারতে ভালবাসার অপরাধে গণধর্ষণ

Published:2014-01-23 19:41:08    

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভিন্ন জাতের ছেলেকে ভালবাসার ‘অপরাধে’ পশ্চিমবঙ্গের বীরভূমের এক তরুণীকে গণধর্ষণ করা হয়েছে। গ্রামপ্রধানের নির্দেশে ১২ জন গ্রামবাসী মিলে ২০ বছরের ওই তরুণীকে ধর্ষণ করে।

স্থানীয় পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রের বরাত দিয়ে বিবিসি ও বিভিন্ন ভারতীয় গণমাধ্যম জানায়, বীরভূমের লাভপুর থানার রাজারামপুরে ভিন্ন সম্প্রদায়ের এক যুবকের সাথে ওই তরুণীর পাঁচ বছর ধরে সম্পর্ক চলছিল। সোমবার তরুনীর বাড়িতে ওই যুবক বিয়ের প্রস্তাব দিতে গেলে গ্রামবাসী তাকে ধরে ফেলে। এরপর দু’জনকেই গাছের সাথে বেঁধে রেখে সালিশ বসানো হয়। সালিশে তাদেরকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করা ধার্য হয়। যুবকটি টাকা দিতে পারলেও মেয়েটির পরিবার টাকা দিতে ব্যর্থ হওয়ায় গ্রামপ্রধান বলাই মাড্ডির নির্দেশে ১২ জন গ্রামবাসী ধর্ষণ করে মেয়েটিকে।

ঘটনাটি সোমবার ঘটলেও মেয়েটির পরিবার বুধবার পুলিশের কাছে অভিযোগ জানাতে সাহস পায়। পরে বুধবার রাতে পুলিশের পক্ষ থেকে মেয়েটিকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

এ ঘটনায় ওই গ্রামপ্রধানসহ ১৩ জন গ্রামবাসীকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ধর্ষিত তরুণী সাংবাদিকদের জানায়, এটা ছিলো খুব ভয়ংকর একটা কান্ড। ধর্ষণকারীরা সব আমার আত্মীয়। তাদের কাউকে আমি কাকা, কাউকে দাদা এবং কাউকে ভাই বলে ডাকতাম। সে জানায়, কতজন ধর্ষণ করেছিলো তা মনে নেই। তবে হতে পারে ৫ জনের বেশী অথবা হতে পারে ১২ জনও।

এদিকে এ ঘটনায় বুধবার দুপুরে ধর্ষিতার পরিবার পুলিশের কাছে অভিযোগ জানিয়েছে। পুলিশ এ সংবাদে ঐ গ্রামে অভিযান চালিয়ে ধর্ষণে জড়িত সুনিল সরেনসহ ১১ জনকে আটক করেছে।

উল্লেখ্য, কলকাতায় ফিটনেস সেন্টারের এক মহিলা চাকুরিজীবি গণধর্ষণের ঘটনার তিন দিন পেরুতেই উপজাতি এই মহিলাকে গণধর্ষণের ঘটনা ঘটলো।

ইএফ

আরও সংবাদ