Widget by:Baiozid khan
শিরোনাম:

ঢাকা Mon July 16 2018 ,

আমরা স্বাভাবিক মৃত্যুর গ্যারান্টি চাই: বরকত উল্লাহ বুলু

Published:2014-02-09 15:49:20    

বাংলাসংবাদ২৪: আমরা স্বাভাবিক মৃত্যুর গ্যারান্টি চাই । দেশের স্বাভাবিক মানুষ ফায়ার, গুম, হত্যা, নির্যাতন থেকে মুক্তি চায় বলেছেন, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব বরকত উল্লাহ বুলু।

রোববার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবে সম্প্রতি লক্ষীপুর সদর জেলা জাতীয়তাবাদী দল আয়োজিত লক্ষীপুর সদর উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ওমর ফারুক চেয়ারম্যান গুমের প্রতিবাদে এক সংবাদ সম্মেলনে বরকত উল্লাহ বুলু এ কথা বলেন ।

বুলু বলেন, গুম, হত্যা, নির্যাতন কোন রকম থেমে নেই । ১৯৭৪ থেকে ১৯৭৫ সালে যা চলতো এখন পর্যন্ত তা বিদ্যমান রয়েছে। এ পর্যন্ত বৃহওর নোয়াখালীতে ৩৩জনকে হত্যা করা হয়েছে।        

যদি এ সমস্যার সমাধান না হয় তাহলে দূর্বার ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তুলবে। ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের মাধ্যমে আমরা  এই সমস্যার পরিত্রান চাই বললেন বরকত উল্লাহ বুলু।

লক্ষীপুর বিএনপির জেলা সভাপতিও সমাজ কল্যান  বিষয়ক সম্পাদক আবুল খায়ের ভূঁইয়া বলেন, বিগত ৪ ফেব্রুয়ারী মঙ্গলবার ভোর রাতে লক্ষীপুর সদর উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও ১১ নং হাজারপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান মো: ওমর ফারুককে চট্রগ্রামে তার ভায়রা ভায়ের বাড়ী থেকে সাদা পোশাকধারী আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয়ে তাকে গ্রেফতার করে। পরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী গ্রেফতারের বিষয়টি অস্বীকার করে। তাকে হত্যা করা হয়েছে নাকি আটক রাখা হয়েছে। পরিবার বা দলীয় নেতাকর্মীরা ও নিশ্চিত জানে না।

তিনি আরো বলেন, আপনাদের নিশ্চয় মনে আছে ১৯৯৬-২০০১সালে আওয়ামী লীগ  যখন ক্ষমতায় ছিলো তখনও সরকারী পৃষ্ঠপোশকতায় হত্যা করা হয়েছিলো ২৯জন বিএনপি নেতাকর্মীকে।             

লক্ষীপুর বিএনপির ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী বলেন, লক্ষীপুর নগর এখন আত্যাচারের নগরী হিসেবে পরিনত হয়েছে। এখন আমরা  আওয়ামী লীগের রাষ্ট্রীয় আত্যাচারের স্বীকার।  সারা দেশব্যাপী খুন, গুম, নির্যাতন হচ্ছে এটা জাতীর জন্য দূভার্গ্যজনক এবং ঘৃৃনীত একটা কাজ।

স্বাধীনতার পর থেকে জাতীয়বাদী শক্তি ধারাবাহিকতা বজায় রেখেছে। কিন্তু আমাদের বহু কর্মী ও নেতাকমী  অত্যাচারের স্বীকার। লক্ষীপুরের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক কে খুঁজেবের করার জন্য সরকারের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে আহ্বান জানান তিনি।

সম্মেলনে  আরো যারা ছিলেন, সাবেক সংসদ সদস্য নাজিম উদ্দিন আহমেদ ও জেলার নেতাকর্মী প্রমুখ।    
 
বাংলাসংবাদ২৪/ওএফ
 

আরও সংবাদ