Widget by:Baiozid khan
  • Advertisement

দিনাজপুরে দশম শ্রেণীর ছাত্রীকে গণধর্ষণ

Published:2014-03-19 21:42:08    

দিনাজপুর প্রতিনিধি: দিনাজপুরের বীরগঞ্জে গনধর্ষনের শিকার এক স্কুল ছাত্রীকে উদ্ধার করে দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গণধর্ষণের শিকার ছাত্রীর নাম রোজিনা বেগম (১৬)।

গত মঙ্গলবার দুপুরে এই ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

সে বীরগঞ্জ উপজেলার মোহনপুর ইউনিয়নের চিলকুড়া গ্রামের বাসিন্দা গোলাপগঞ্জের আ'লীগ আঞ্চলিক কার্যালয়ের কেয়ারটেকার আব্দুর রহমানের কন্যা। সে পাথরঘাটা উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণীর ছাত্রী।

জানা যায়, রোজিনা বেগম সাথে একই গ্রামের যুবক রুবেল প্রেমের নাটক করে গত সোমবার দুপুরে একই ইউনিয়নের পাথরঘাটা নদীর তীরে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে জোর করে নেশা জাতীয় খাবার খাইয়ে দেয়।

পরে তাকে একের পর এক ৬/৭ জন মিলে গনধর্ষণ করে। ধর্ষনের পর নদীর তীরে ফেলে রেখে ধর্ষকেরা পালিয়ে যায়। বিকেলে স্থানীয় রাখাল গরু ঘাস খাওয়াতে গিয়ে বিবস্ত্র ও মুমুর্ষ অবস্থায় রোজিনাকে অচেতন অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে চিৎকার করলে এলাকাবাসী পরিবারের লোকজনকে খবর দেয়।

পরিবারের লোকজন খবর পেয়ে মুমুর্ষ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। অবস্থার অবনতি হলে বুধবার সকালে তাকে দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার আসিফ আনোয়ার জানান রোজিনা ধর্ষনের স্বীকার বলে সন্দেহ করা হয়েছে আলামত পরীক্ষার কোন ব্যবস্থা না থাকায় তাকে দিমেক হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

বিষয়টি উপজেলা আওয়ামীলীগর সাধারন সম্পাদক দেবেশ চন্দ্র রায় ও গোলাপগঞ্জ আঞ্চলিক শাখার সাধারন সম্পাদক সিদ্দিক হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে দোষী ব্যাক্তিদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির জোর দাবী জানান।

এ ব্যাপারে থানার অফিসার ইনচার্জ আরমান জানান, তিনি ঘটনা শুনেছেন। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তবে এখন পর্যন্ত কেউ কোন অভিযোগ করেনি।

বাংলাসংবাদ২৪/রিপন/মাক্কী

আরও সংবাদ