Widget by:Baiozid khan
  • Advertisement

দিল্লিতে নারীদের সম্ভ্রম নিরাপদ নয়, দিনে ৬ ধর্ষণ, হয়রানি ১৪

Published:2014-05-27 13:29:43    

নারীদের জন্য নিরাপদ নয় দিল্লি, প্রতিদিন ৬ ধর্ষণ, হয়রানি ১৪

ভারতের রাজধানী দিল্লিতে প্রতিদিন ছয়জন নারী ধর্ষণ ও ১৪ জন যৌন হয়রানির শিকার হন। চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে এপ্রিল পর্যন্ত  এই চার মাসের থানায় আসা মামলার পরিসংখ্যান থেকে পুলিশ এ তথ্য দিয়েছে।

 

টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবরে বলা হয়েছে, ২০১৪ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত দিল্লির বিভিন্ন থানায় ৬১৬টি ধর্ষণের এবং এক হাজার ৩৩৬টি নির্যাতনের মামলা হয়েছে। গত বছরের তুলনার এবার ধর্ষণের মামলা বেড়েছে ৩৬ শতাংশ। গতবছরে প্রথম চার মাসে এ সংখ্যা ছিল ৪৫০।

 

পুলিশের দেয়া তথ্য মতে, দিল্লি শহর নারীদের জন্য নিরাপদ নয়। তবে এ ক্ষেত্রে পুলিশের দাবি তারা শতকরা ৯০ শতাংশ মামলা নিষ্পত্তি করেছেন এবং অনেক অপরাধীকে আইনের আওতায় এনেছেন।


দিল্লির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (অপরাধ শাখা) অশোক চাদ বলেন, নারীর ওপর নির্যাতনের মামলার ক্ষেত্রে পুলিশের কঠোর অবস্থানের কারণেই থানায় মামলা বাড়ছে। ২০১২ সালের ১৬ ডিসেম্বর দিল্লিতে ২৩ বছর বয়সী মেডিকেলের এক ছাত্রী চলন্ত বাসে গণধর্ষণের শিকার হন। এর ১৩ দিন পর ২৯ ডিসেম্বর সিঙ্গাপুরে চিকিত্সাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়। এ মর্মান্তিক ঘটনার পর দিল্লিসহ দেশটির বিভিন্ন স্থানে ধর্ষণের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয় ওঠে সাধারণ মানুষ। ‘ধর্ষণের রাজধানী’ তকমা জোটে দিল্লির কপালে। এ ঘটনার পর নারীদের নিরাপদে চলাফেরা নিশ্চিত করার জন্য বেশ কিছু উদ্যোগ নেয়া হয় দিল্লি পুলিশের পক্ষ থেকে। কিন্তু এ পরিসংখ্যান প্রমাণ করে, দিল্লির রাস্তায় নারীদের নিরাপত্তা নিয়ে সচেতনতামূলক প্রচারণা, আত্মরক্ষার জন্য প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা, নারী পুলিশ ইউনিট গঠনের মত উদ্যোগগুলো কোনো কাজে আসেনি।


এ অবস্থায় পুলিশ নারী ও শিশু নির্যাতন রোধে নতুন একটি বিশেষ ইউনিট গঠন করেছে। এরা নারীদের সচেতন করাসহ স্কুল-কলেজের ছাত্রীদের আত্মরক্ষার নানা কৌশল শেখাচ্ছে। তারা একটি ফোন নম্বর খুলেছে, যেখানে যে কেউ ফোন করে পুলিশের সহায়তাও চাইতে পারে

বাংলাসংবাদ ডেস্ক

আরও সংবাদ