Widget by:Baiozid khan
শিরোনাম:

ঢাকা Sun July 22 2018 ,

রাজনৈতিক মামলায় ব্যাস্ত পুলিশ

Published:2015-03-20 21:20:08    

বাংলাসংবাদ২৪: জানুয়ারি মাসে সারাদেশে বিভিন্ন অপরাধে ১৩ হাজার ৭৪১টি মামলা হয়েছে।প্রায় এর সবগুলির বাদিই পুলিশ। আবার রাজনৈতিক মামলারও।অপরদিকে শুধু রাজনৈতিক সহিংসতা দমনে পুলিশ ব্যস্ত থাকছে সবটা কর্মসময়। ফলে দৈনন্দিন কাজ বিশেষ করে মামলার তদন্ত ও সাধারণ মানুষকে সেবা দেয়ার কার্যক্রম বিঘ্নিত হচ্ছে। তদন্ত কার্যক্রমে সময় দিতে না পারায় পুলিশের ঘাড়ে মামলার পাহাড় জমেছে। রাজধানীর ৪৯ থানায় প্রতি একজন তদন্তকারী কর্মকর্তার ঘাড়ে গড়ে ১৫টি মামলা ঝুলছে। স্থানীয় পেশাদার সন্ত্রাসী গ্রেফতার কার্যক্রমও ঝিমিয়ে পড়েছে।


পুলিশ সদর দফতরের অপরাধ বিভাগের একটি সূত্র জানায়, চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে সারাদেশে বিভিন্ন অপরাধে ১৩ হাজার ৭৪১টি মামলা হয়েছে। এ মামলাগুলোর মধ্যে মাদক সংক্রান্ত মামলা হয়েছে ২ হাজার ৯৮৬টি। ফেব্রুয়ারি মাসে মামলা হয়েছে ১২ হাজার ৩৮৭টি। এর মধ্যে ২ হাজার ৭১৭টি মামলা রয়েছে মাদক সংক্রান্ত মামলা হয়েছে। সরকারি কর্তব্যকাজে বাধা ও পুলিশের ওপর হামলার অভিযোগে এই দুই মাসে মামলা হয়েছে ১৬৯টি। জানুয়ারি ও ফেব্রয়ারি মাসে সারাদেশে ২৬ হাজার ১২৮ মামলা দায়ের হয়েছে। সম্প্রতি এক প্রেস ব্রিফিংয়ে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, ২০১৪ সালে ডিএমপির বিভিন্ন থানায় মোট ১৯ হাজার ৪০৭টি মামলা হয়েছে। এর মধ্যে ৭৭ শতাংশ মামলারই চার্জশিট দাখিল করা হয়েছে।


চলতি বছর টানা হরতাল-অবরোধ চলাকালে সারাদেশে রাজনৈতিক মামলা হয়েছে প্রায় ৯শ’। এদের মধ্যে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের ৪৯ থানায় মামলা হয়েছে ৩২৫টি। ঢাকায় গ্রেফতার হয়েছে প্রায় ১৩শ’। রাজনৈতিক উত্তাপ নিয়ন্ত্রণে বেশি সময় দেয়ায় পুলিশ-র‌্যাব চুরি, ডাকাতি, খুন, ছিনতাই ও চাঁদাবাজির ঘটনা প্রতিরোধে সময় দিতে পারছে না। একজন পুলিশ কর্মকর্তা জানান, অবরোধ-হরতাল কর্মসূচি শুরুর পর থেকে বাড়তি আট ঘণ্টা কাজ করেও সাধারণ মানুষকে প্রয়োজনীয় সেবা দেয়া সম্ভব হয়ে উঠছে না। পাশাপাশি চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলার তদন্ত কার্যক্রম ঝিমিয়ে পড়েছে।

গোপীবাগের সিক্স মার্ডার, পূর্ব রাজাবাজারে টেলিভিশন উপস্থাপক নুরুল ইসলাম ফারুকী হত্যা, মিরপুরে ৯০ লাখ টাকা ছিনতাই, কদমতলীতে প্রবাসীর স্ত্রী খুন, আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য ইলিয়াছ উদ্দিন মোল্লার ব্যক্তিগত সহকারী আমির হোসেন কাঞ্চন হত্যা মামলা, রামপুরায় পুলিশের সাবেক এডিশনাল এসপি ফজলুল করিম খান হত্যা মামলা, দৈনিক ইত্তেফাকের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক আখতার-উল-আলমের মেয়ে ফাহমিদা আক্তার হত্যা মামলাসহ অনেক মামলার তদন্ত থমকে আছে।


ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) অপরাধ শাখা সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছর জানুয়ারি মাসে রাজধানীর ৪৯টি থানায় বিভিন্ন ধারায় ১২৯৪টি মামলা হয়েছে। অথচ গত বছর নভেম্বর ও ডিসেম্বর মাসে এই সংখ্যা ছিল তিন হাজারেরও বেশি। গত নভেম্বর ও ডিসেম্বর মাসে মাদক আইনে মামলা হয়েছে ৯৪৯টি, যা জানুয়ারিতে এসে দাঁড়ায় মাত্র ১৯০টিতে। আর গাড়ি চুরির মামলা হয়েছে মাত্র ১২টি, যা ডিসেম্বর মাসে হয়েছিল ২৫৪টি। চলতি বছর জানুয়ারি মাসে রাজধানীতে ৩টি ডাকাতি, ১১টি দস্যুতা এবং ৭টি অপহরণের মামলা হয়েছে। এছাড়া মাদকদ্রব্য, নারী ও শিশু নির্যাতন এবং গাড়ি চুরির মামলাও গত এক মাসে তুলনামূলক অনেক কমেছে।

অজ্ঞান পার্টি-মলম পার্টির মামলা নেই বললেই চলে। এতে অরাজনৈতিক মামলায় গ্রেফতারের সংখ্যা অর্ধেকের চেয়ে নিচে নেমে এসেছে।
ডিএমপি’র একজন কর্মকর্তা জানান, গত ৫ জানুয়ারির পর রাজধানীতে খুন, চুরি, ডাকাতি, ছিনতাই আগের তুলনায় অনেক কমেছে। রাজনৈতিক সহিংসতার কারণে রাস্তায়, পাড়ার অলিগলিতে পুলিশের টহল ও নজরদারি বেড়েছে। এ কারণে সাধারণ অপরাধীরা কিছুটা কোণঠাসা।

আরও সংবাদ