Widget by:Baiozid khan
শিরোনাম:

ঢাকা Tue July 07 2020 ,

  • Techno Haat Free Domain Offer

দিনাজপুরের বৃদ্ধরা জীবিকার তাগিদে পথে পথে

Published:2015-03-22 17:37:35    
দিনাজপুর প্রতিনিধি: দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ, বিরামপুর, হাকিমপুর ও ঘোড়াঘাট উপজেলায় বৃদ্ধাআশ্রম না থাকায় হত দরিদ্র পরিবারে অসহায় নারী-পুরুষ জীবিকা নির্বাহের তাগিদে ও পরিধেয় পোশাকের জন্য পথে পথে ঘুরছে। দেশ স্বাধীনের পর সমাজসেবা মন্ত্রণালয়ের অধীনে শিশুসদন এতিমখানায় বরাদ্দ দেয়া হলেও দিনাজপুরের এ চার উপজেলায় আজও গড়ে ওঠেনি বৃদ্ধাআশ্রম। এলাকার সচেতন মহল বা প্রভাবশালী কোন মহলেই নেয়নি আশ্রম তৈরির উদ্দ্যেগ। 
 
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে- হত দরিদ্র শ্রেনীর পরিবার প্রধান জীবন যৌবন থাকা সময় কেউ বা শিশু শ্রমিকের কাজ, হোটেল রেস্তোরার শ্রমিকের কাজ বা শ্রমিকের পেশা দৈনন্দিন পারিশ্রমিকের বিনিময়ে অর্থ উপার্জন করে ২/৩ টি ছেলে মেয়ে খেয়ে না খেয়ে অতি কষ্টে প্রতিপালন করেছে। অনেক পুত্র সন্তান কোন ভাবেই বৃদ্ধ মা বাবার খোঁজ খবর নেয়া তো দূরের কথা তাদের দেখা-শোনাও করেন না। বাধ্য হয়ে নিজের জীবিকা নির্বাহের জন্য কেউ বন থেকে শাল পাতা সংগ্রহ করে, কেউ বৃদ্ধ বয়সে রিক্সা-ভ্যান চালিয়ে, কেউবা হোটেল-রেস্তোরায় রোগাক্রান্ত অবস্থায় থালা বাসন পরিস্কার করে জীবিকা নির্বাহ করছে। 
 
শহরগ্রামে ভিক্ষাবৃত্তি করে কেউ একমুঠো ভিক্ষা দেয় আবার কেউ বকুনিও দেয়। কোন সদয়বান ব্যক্তি হয়ত এক’দু বেলা খাবারও দেয়। কিন্তু রাত কেটে গেলেই চলে আসে দিন। খাবারের প্রয়োজন অন্য ও পরনে প্রয়োজন বস্ত্র, কে দিবে আর কে খোঁজ রাখবে তাদের। 
এ রিপোর্ট সংগ্রহ করতে গেলে নবাবগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সিড়িতে কথা হয় উপজেলার তর্পনঘাট এলাকার মৃত জাকের আলীর বিধবা স্ত্রী ৯০ বছর বয়সী আনোয়ারার সাথে। 
 
খুব হাঁপিয়ে হাঁপিয়ে ও কেঁদে কেঁদে ৫/১০ টি টাকা ভিক্ষা চেয়ে হামাগুড়ি দিয়ে সিড়ি অতিক্রম করছেন। আনোয়ার জানায়- তার বিধবা মেয়ে আছিনা খাতুনের সাথে তিনি বসবাস করেন। এ বিষয়ে নবাবগঞ্জ উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মোছাঃ পারুল বেগমের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান- সরকার বৃদ্ধ নারী-পুরুষের অসহায়ত্বের দিক বিবেচনা করে বয়স্কভাতা কার্যক্রম হাতে নিয়েছে।
 
বৃদ্ধাআশ্রম জরুরী বলেও তিনি মনে করেন। এ বিষয়ে নবাবগঞ্জ উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা রেবেকা সুলতানা জানান- সরকার অসহায় নারী-পুরুষের জন্য মাসিক ভিজিডি, মহিলাদের মাতৃত্বকালীন ভাতাসহ ব্যবস্থা নিয়েছেন অনেক। তবে বৃদ্ধাআশ্রম প্রতিষ্ঠা করা অতীব জরুরী।
 
বাংলাসংবাদ২৪/এম.রুহুল আমিন প্রধান/কবির হোসেন।

আরও সংবাদ