Widget by:Baiozid khan
শিরোনাম:

ঢাকা Tue August 21 2018 ,

ব্লগার অনন্ত বিজয় হত্যা,সংবাদের ফটোসাংবাদিক আটকের পর রিমান্ডে

Published:2015-06-08 21:55:48    

বাংলাসংবাদ ২৪: হামিদুর রহমান :

ব্লগার ও তরুণ ব্যাংকার অনন্ত বিজয় দাশকে হত্যার ঘটনায় ইদ্রিস আলী (২৪) নামের এক ফটোসাংবাদিককে গ্রেপ্তার করে আদালতের নির্দেশে সাত দিনের রিমাণ্ডে নিয়েছে পুলিশ। 
জাতীয় দৈনিক সংবাদ এবং সিলেটের স্থানীয় দৈনিক সবুজ সিলেট-এর ফটোসাংবাদিক ইদ্রিস আলীকে গতকাল রোববার রাতে গ্রেপ্তার করা হয়। আজ সোমবার বেলা দুইটার দিকে তাঁকে সিলেট মহানগর হাকিম (আমলি দ্বিতীয়) আদালতে হাজির করে ১৫ দিনের রিমান্ডের আবেদন করেন ঢাকার সিআইডির (অর্গানাইজড ক্রাইম বিভাগ) পরিদর্শক আরমান আলী। বিচারক ফারহানা ইয়াসমিন সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। 
রিমান্ড মঞ্জুরের পর ইদ্রিসকে ঢাকা নিয়ে যাওয়া হচ্ছে বলে তদন্ত-সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র প্রথম আলোকে নিশ্চিত করেছে। 
গত ১২ মে সকালে সিলেট নগরের সুবিদবাজারের নূরানী আবাসিক এলাকার চৌরাস্তা মোড়ে অনন্তকে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। ঘটনার দিন রাতে মহানগর পুলিশের বিমানবন্দর থানায় অনন্তের বড় ভাই রত্নেশ্বর দাশ বাদী হয়ে অজ্ঞাত চারজনকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেন। গত ২৫মে মামলাটি পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগে (সিআইডি) স্থানান্তর করা হয়। গত শুক্রবার থেকে ঢাকার সিআইডির একটি তদন্ত দল সিলেটে এসে সরেজমিনে তদন্ত শুরু করে। 
ইদ্রিস আলীর বাড়ি সিলেট শহরতলির খাদিমপাড়া ইউনিয়নের ফতেগড় গ্রামে। ইদ্রিসের বাবা ইলিয়াস আলী খাদিমপাড়া ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি ও ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য। তাঁর পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গতকাল রোববার রাত ১১টার দিকে ইদ্রিসকে বাসা থেকে ঢাকার সিআইডি পুলিশের একটি দল আটক করে নিয়ে যায়। 
রিমান্ড আবেদনে সিআইডি পরিদর্শক আরমান আলী উল্লেখ করেন, মামলায় তদন্তে প্রাপ্ত তথ্য-উপাত্ত ও বিভিন্ন সোর্সের ভিত্তিতে মো. ইদ্রিস আলী এ মামলার সঙ্গে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে জড়িয়ে রয়েছেন বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। সিআইডির দাবি, ইদ্রিস একজন ‘জঙ্গি অপরাধী চক্রের সক্রিয় সদস্য’। অনন্ত হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত অস্ত্রপাতি উদ্ধারসহ তাঁর হত্যার দায় স্বীকার করা আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের কার্যক্রম সংক্রান্ত তথ্য উদঘাটনের জন্য আদালতের কাছে ইদ্রিস আলীর ১৫ দিনের রিমান্ড চান পরিদর্শক আরমান আলী। 
আরমান আলীর মোবাইল বন্ধ থাকায় তাঁর সঙ্গে কথা বলা সম্ভব হয়নি। 
এ ব্যাপারে সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার (গণমাধ্যম) মো. রহমত উল্লাহ প্রথম আলোকে বলেন, ইদ্রিসকে সন্দিগ্ধ আসামি হিসেবে গ্রেপ্তার দেখিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাত দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে।

আরও সংবাদ