Widget by:Baiozid khan
  • Advertisement

উদ্বোধন হলো ন্যাশনাল ব্যাকবোন নেটওয়ার্ক

Published:2015-06-23 15:16:07    
বাংলা সংবাদ, ২৩জুন২০১৫ :
 
রাজধানী থেকে দেশের বিভাগ, জেলা ও উপজেলা পর্যন্ত সরকারি অফিসসমূহকে একই ব্যাকবোন নেটওয়ার্কে আনার লক্ষ্যে ‘ন্যাশনাল ব্যাকবোন নেটওয়ার্ক অব বাংলাদেশ গর্ভমেন্ট-বাংলাগভ.নেট প্রজেক্ট’ কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়েছে।
 
রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ে মঙ্গলবার দুপুরে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী বেগম ইসমাত আরা সাদিক এ কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বেগম ইসমাত আরা সাদিক বলেন, ‘তথ্য ও প্রযুক্তির ব্যবহার অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক ও সামাজিক হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে। তথ্যপ্রযুক্তির মহাসড়ক ধরে এগিয়ে যাওয়ার পথে এটি মাইলফলক হিসেবে চিহ্নিত হয়ে থাকবে। এর মধ্য দিয়ে ই-গভর্নেন্স বাস্তবায়নের জন্য দেশব্যাপী উপযুক্ত নেটওয়ার্ক ব্যাকবোন স্থাপিত হবে। জনপ্রশাসনে আইসিটি ব্যবহার ও প্রয়োগের মাধ্যমে দক্ষতা, জবাবদিহিতা, স্বচ্ছতা বৃদ্ধি, সম্পদের অপচয় রোধ ও সেবার গুণগত মান বৃদ্ধিতে এটি কার্যকর অবদান রাখতে সক্ষম হবে।’
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ‘বাংলাদেশ এখন নিদিষ্ট সময়ের আগেই প্রকল্প বাস্তবায়নের ক্ষমতা রাখে। বাংলাদেশ একসময় পাঁচবার দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। প্রযুক্তি ব্যবহারের ফলে বর্তমানে দেশে দুর্নীতি অনেক কমেছে, পাশাপাশি সময় ও কাজের গতি বাড়িয়ে দিয়েছে। এ প্রকল্পের সফল বাস্তবায়নের মাধ্যমে সরকারের কার্যক্রমে কোনো স্থবিরতা থাকবে না।’
‘যে কোনো উন্নত দেশের তুলনায় বাংলাদেশ তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারের ক্ষেত্রে কোনো অংশে পিছিয়ে নেই। ২০১৫ সালের সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যেই ৪৮৭টি উপজেলায় ব্রডব্যান্ড দিয়ে হাইস্পিড ইন্টারনেট চালু করব। ফলে দেশের প্রশাসনিক সকল কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ অত্যন্ত সহজ ও ফলদায়ক হবে,’ বলেন তিনি।
আইসিটি প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, ‘অফিসের দৈনন্দিন কার্যক্রমে কাগজের ব্যবহার হ্রাস হওয়ার দরুন পরিবেশবান্ধব প্রকল্প হিসেবেও এটি বিবেচিত হবে। সরকার রাজধানী থেকে তৃণমূল পর্যায় পর্যন্ত হাইস্পিড কানেকটিভিটির মাধ্যমে ই-গভর্নেন্স বাস্তবায়নে অঙ্গীকারবদ্ধ। সঠিকভাবে ই-গভর্নেন্স বাস্তবায়িত হলে গুড গভর্নেন্স বাস্তবায়ন সহজ হবে। যার মাধ্যমে সরকারের ২০২১ সালের মধ্যে মেধা ও প্রযুক্তি নির্ভর ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের প্রয়াস সফল হবে।’
একই সঙ্গে কোরিয়ান সরকারের সঙ্গে আরও নতুন নতুন প্রকল্প চালু করার আশা ব্যক্ত করেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী।
এ প্রকল্প বাস্তবায়নের মাধ্যমে ৫৮টি মন্ত্রণালয়/বিভাগ, ২২৭টি অধিদফতর/দফতর/সংস্থা, ৬৪টি জেলা ও প্রত্যেক জেলার একটি করে উপজেলা ব্যাকবোন নেটওয়ার্কের আওতায় চলে আসবে। এতে করে দ্রুত ডাটা ট্রান্সফার, ভিডিও কনফারেন্সিং ও আইপি ফোন ব্যবহারের সুবিধাসহ ইনফ্রা নেটওয়াকিং এর ক্ষেত্রে যুগান্তকারী অগ্রগতি হবে। এ ছাড়া প্রকল্পের আওতায় ঢাকাতে ৪৩ কিলোমিটার ফাইবার অপটিক লাইন স্থাপন করা হয়েছে। সিসিসি ভবনে নেটওয়ার্ক অপারেশন সেন্টার (এনওসি) স্থাপন করা হয়েছে।
‘ডেভেলপমেন্ট অব ন্যাশনাল আইসিটি ইনফ্রা-নেটওয়ার্ক ফর বাংলাদেশ গর্ভমেন্ট (বাংলাগভ.নেট) প্রকল্পটি আইসিটি বিভাগের অধীন বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি) বাস্তবায়ন করেছে। কোরিয়ান সরকারের আর্থিক সহায়তায় বাস্তবায়িত প্রকল্পটির ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এসকে সি এ্যান্ড সি কোম্পানি লিমিটেড।
বিসিসির নির্বাহী পরিচালক এস এম আশরাফুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত ইয়ান ইয়ং লি (Yun Young Lee), কেবিনেট ডিভিশনের সচিব মো. নজরুল ইসলাম, আইসিটি সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদার, বাংলাগভ.নেট প্রকল্প পরিচালক মাহবুবুর রহমান এবং প্রকল্প বাস্তবায়নকারী ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এসকে সি এ্যান্ড সি কোম্পানি লিমিটেড ভাইস প্রেসিডেন্ট সো ইয়ং লি (Soo Young Lee)।

আরও সংবাদ