Widget by:Baiozid khan
শিরোনাম:

ঢাকা Sun June 24 2018 ,

অনলাইন আর্কাইভে চিরস্মরণীয় হল ফিরোজা বেগমের সঙ্গীত

Published:2015-09-09 18:11:49    

ঢাকা, বাংলাদেশ: কিংবদন্তী নজরুল সঙ্গীত শিল্পী  ফিরোজা বেগমের ভাইজি এবং একনিষ্ঠ শিষ্যা সুস্মিতা আনিস নিজস্ব ওয়েবসাইট িি.িংযঁংসরঃধধহরং.পড়স -এ তাঁর সঙ্গীত সংরক্ষণের উদ্যোগ গ্রহন করেছেন। আজ ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৫  আর্কাইভটি চালু করা হয়। একই সাথে সঙ্গীত শিল্পী  সুস্মিতা আনিস অনলাইন এক্সেনডেড প্লে-তে ‘মেমোয়ের ফিরোজা বেগম’ শিরোনামে ফিরোজা বেগমের সুরে তিনটি মৌলিক গান পরিবেশন করেছেন। অ্যালবামটিতে ফিরোজা বেগমেরের জবানীতে গানগুলো প্রসঙ্গে তাঁর কিছু বর্ণনা সংযুক্ত হয়েছে। আজ ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৫ ফিরোজা বেগমেরের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকীতে তাঁকে স্মরণ করে তাঁর জীবন ও কর্ম ভিত্তিক আর্কাইভ এবং অনলাইন অ্যালবামটি প্রকাশ করা হল।   

বহু বছর ধরে ভক্ত ¯্রােতাবৃন্দ ফিরোজা বেগমের গানের অ্যালবাম, সঙ্গীতকে ঘিরে তাঁর বিভিন্ন কর্মসমূহ, তাঁর ধারণকৃত কথোপকথন ও সঙ্গীতানুষ্ঠান স্মারক হিসেবে ব্যক্তিগত পর্যায়ে সংরক্ষণ করে আসছেন। সুস্মিতা আনিস এই মহান শিল্পীর সম্মানার্থে ডিজিটাল আর্কাইভটি চালু করেছেন যাতে করে পৃথিবীজুড়ে সঙ্গিতপ্রেমী সকলে যে কোন সময়ে যে কোন স্থান থেকে এইসব দুষ্প্রাপ্য স্মারক সমূহের সংস্পর্শে আসতে পারেন। তিনি তার সাম্প্রতিক কর্মকাণ্ডের মধ্য দিয়ে ফিরোজা বেগমের সাধনা এবং এর ধারাবাহিকতাকে সামনে এগিয়ে নিতে চান এবং নজরুল সঙ্গীতকে বিশেষত তরুণদের মাঝে আরও জনপ্রিয় করে তুলতে চান।      
র্
সুস্মিতা আনিস বলেন, “সঙ্গীতে ফিরোজা বেগমের অবদান এবং সঙ্গীতের প্রতি তাঁর অকৃত্রিম ভালোবাসা অবিস্মরণীয়। আমি মনে করি, নজরুল সঙ্গীত ও ফিরোজা বেগম এই দুইয়ের কিংবদন্তী পৃথিবীর সকলের মাঝে স্ববিস্তারে উপস্থাপন করা আমার কর্তব্য। তাঁর সুরের মূর্ছনা সকলের হৃদয়কে ছুঁয়ে যায়। তাই আমি আমার ওয়েবসাইটে ‘ফিরোজা বেগম আর্কাইভ’ প্রকাশ করেছি যাতে করে বিশ্বব্যাপী সকল ভক্তবৃন্দ তাঁর দুর্লভ গানগুলো শোনার পাশাপাশি সঙ্গীতাঙ্গনকে ঘিরে তাঁর অভিজ্ঞতাগুলো ভাগ করে নিতে পারেন।’’

অ্যালবামের গানগুলো হল- ‘আমার এ ঘর ভাঙ্গিয়াছে যেবা, আমি বাঁধি তার ঘর’, ‘আমি নিজেরে জ্বালায়ে তোমারে দিয়েছি আলো’ এবং ‘যদি পৃথিবী পান্থনিবাস’। গানগুলো একসাথে পাওয়া যাবে http:///melabel.Ink.to/MémoireFerozaBegum ওয়েবলিঙ্ক-এ। বাংলাদেশে রিংটোনের জন্য এসএমএস করুন যথাক্রমে ৫০৩৮৪১৯, ৫০৩৮৪২০, এবং ৫০৩৮৪২১ জিপি, এয়ারটেল, রবি এবং টেলিটক নম্বরে এবং যথাক্রমে ৫৯৭৪০, ৫৯৭৪১, এবং ৫৯৭৪২ বাংলালিংক নাম্বারে। ইন্ডিয়া, মালয়শিয়া এবং মধ্যপ্রাচ্যের জন্য রিংটোন সমুহ খুব শীঘ্রই প্রকাশ করা হবে।  
 

আরও সংবাদ