Widget by:Baiozid khan
  • Advertisement

পেটে অস্বস্তি

Published:2015-11-18 16:38:25    
হার্ভার্ড মেডিকল স্কুলের বিশেষজ্ঞরা জানান, অনেক সময় কিছু খাবার হজমে বাধা দেয়। আর তখনই এ ধরনের অস্বস্তি অনুভূত হতে পারে।
 
স্বাস্থ্যবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে এ ধরনের সমস্যার বিষয়ে কিছু তথ্য উল্লেখ করা হয়। তাছাড়া এ সমস্যা থেকে রেহাইয়ের বিষয়েও কিছু পরামর্শ এখানে তুলে ধরা হয়।
 
অনেক সময় খাওয়ার পরে মনে হয় পেট ফুলে আছে আর অস্বস্তি ভাব হতে থাকে। তাছাড়া পেটে জ্বালাপোড়া হওয়াও বেশ সাধারণ একটি সমস্যা। অনেকের আবার বমিভাবও হয়।
 
এ লক্ষণগুলো মূলত পেটের সমস্যা হিসেবেই দেখা হয়। ডাক্তারি ভাষায় এ সমস্যাগুলোকে বলা হয় ‘ডিসপেপসিয়া’ বা ‘ব্যাড ডাইজেসশন’ অর্থাত হজমে সমস্যা।
 
কোনো অসুখ ছাড়াই খাবার খাওয়ার পর পেটে অস্বস্তি হওয়া বা জ্বালাপোড়া হওয়াকে চিকিৎসকরা ডিসপেপসিয়া হিসেবেই ধরে নেন। খাওয়ার সময় থেকে বা খাওয়া শেষ হওয়ার পরপরই বা আধা ঘণ্টা থেকে এক ঘণ্টা পর এ ধরনের অস্বস্তি অনুভূত হতে থাকে।
 
অনেকের ক্ষেত্রে এ সমস্যা বেশ দীর্ঘ স্থায়ী হয়। ‘ফাংশনাল ডিসপেপসিয়া’র ক্ষেত্রে স্বাস্থ্য পরীক্ষার মাধ্যমে কখনও তেমন কোনো সমস্যা ধরা পরে না।
 
নারী এবং পুরুষ উভয়ের ক্ষেত্রেই এই সমস্যা সমানভাবে হয়ে থাকে। তবে ‘ফাংশনাল ডিসপেপসিয়া’র নির্দিষ্ট কোনো কারণ এবং সমাধানও নেই।
 
তবে কিছু বিষয় খেয়াল রাখলে এই অস্বস্তিকর অনুভূতি থেকে রেহাই পাওয়া যায়।
 
- খেয়াল রাখতে হবে কোন খাবারগুলোর কারণে পেটে অস্বস্তি হয়। ওই খাবারগুলো এড়িয়ে চলার চেষ্টা করতে হবে।
 
- প্রতিবার অল্প পরিমাণে প্রোটিনজাতীয় খাবার খেতে হবে। একসঙ্গে বেশি খাবার খাওয়া যাবে না। প্রতিবারে অল্প পরিমাণে খাবার প্রয়োজনে বার বার খাওয়া যেতে পারে।
 
- যে কারণে পেটে অতিরিক্ত বাতাস ঢুকে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে সেগুলো এড়িয়ে যেতে হবে। যেমন- ধূমপান, দ্রুত খাওয়া, চুইংগাম চাবানো, কার্বোনেইটেড কোমল পানীয় গ্রহণ ইত্যাদি ত্যাগ করতে হবে।
 
- মানসিক চাপ কমিয়ে আনার চেষ্টা করতে হবে। নিয়মিত ব্যায়াম করা গেলে মানসিক চাপ কমানো সম্ভব তাছাড়া ওজনও নিয়ন্ত্রণে থাকবে।
 
- পর্যাপ্ত বিশ্রাম নিতে হবে।
 
- ঘুমানো বা শোয়ার অন্তত দুঘণ্টা আগে খাবার খেতে হবে।
 
- ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে।

আরও সংবাদ