Widget by:Baiozid khan
  • Advertisement

হজের ভিসাসহ সবই অনলাইনে: মন্ত্রী

Published:2016-03-12 18:20:49    
হজযাত্রীদের এবার থেকে হজের ভিসাসহ সব ধরনের সেবা অনলাইনে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন ধর্মমন্ত্রী মতিউর রহমান।
 
 
শনিবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ‘হজ ও ওমরাহ মেলা ২০১৬’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এতথ্য জানান।
 
ধর্মমন্ত্রী আশা প্রকাশ করেন, হজযাত্রীদের অনলাইনভিত্তিক সেবা দিতে পারলে এ খাতের দুর্নীতি ও অস্বচ্ছতা দূর করা সম্ভব হবে।
 
তিনি বলেন, “এবার থেকে হজে যেতে প্রথমে অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। এরপর নির্ধারিত অর্থ অনলাইনে (ই-পেমেন্ট) পরিশোধ করতে হবে। পরে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির নামে রেজিস্ট্রেশনের ভিত্তিতে স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতেই ভিসা এন্ট্রি হবে।”
 
হজে লোক পাঠানো এজেন্সিগুলোর সমিতি- হাব আয়োজিত মেলায় অন্যদের মধ্যে ধর্ম মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি বজলুল হক হারুন, মন্ত্রণালয়ের সচিব মোহা. আব্দুল জলিল, হাব সভাপতি মোহাম্মদ ইব্রাহিম বাহার ও মহাসচিব শেখ আব্দুল্লাহ বক্তব্য রাখেন।
মন্ত্রী বলেন, এবার বাংলাদেশ থেকে এক লাখ এক হাজার ৭৫৮ জন হজ করতে যেতে পারবেন। এর মধ্যে ১০ হাজার যেতে পারবেন সরকারিভাবে; বাকিরা বেসরকারিভাবে। তবে সৌদি কর্তৃপক্ষের কাছে আরও ৫ হাজার জনকে হজের সুযোগ দেওয়ার দাবি জানানো হয়েছে।
 
হজ করতে প্রত্যেককে প্রায় ৩ লাখ ৫ হাজার টাকা ব্যয় করতে হবে জানিয়ে তিনি বলেন, ২০ মার্চ এ বছরের হজ কার্য়ক্রম উদ্বোধন করা হবে। এবার কোনো অনিয়ম বা দুর্নীতির আশ্রয় নিলে, ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হলে তাদেরকে শাস্তির মুখে পড়তে হবে।
 
ধর্ম সচিব আব্দুল জলিল বলেন, “এবারের মেলার প্রধান উদ্দেশ্য হজে যেতে আগ্রহী ব্যক্তি বা দর্শনার্থীদের কাছে ই-সিস্টেম প্রক্রিয়া বুঝানো।”
তিনি জানান, এবারও সুষ্ঠুভাবে বাংলাদেশি হজযাত্রীদের সমন্বিতভাবে সেবা দিতে সৌদি কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠক হয়েছে। বৈঠকে সৌদি কর্তৃপক্ষ অভিযোগ করেছে, বাংলাদেশি হাজিদের সবাই কোরবানি দেয় না; অথচ কোরবানি দেওয়া হজের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ।
 
সচিব বলেন, তদন্তে দেখা গেছে, এজেন্সিগুলোকে হাজিরা কোরবানির টাকাও পরিশোধ করতেন। কিন্তু এজেন্সির লোকজন তাদের জন্য কোরবানি দিতেন না। তাই এবার সে জটিলতা দূর করতে সমন্বিত উদ্যোগ নেওয়া হবে।

আরও সংবাদ