Widget by:Baiozid khan
  • Advertisement

আফগানদের বিপক্ষে ঘুরে দাঁড়াতে চায় দক্ষিণ আফ্রিকা

Published:2016-03-20 07:56:03    
 
টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে রানের পাহাড় গড়ার পরও ইংল্যান্ডের কাছে নাটকীয়ভাবে হেরে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা। তাই কিছুটা হলেও কোণঠাসা প্রোটিয়ারা ঘুরে দাঁড়াতে চায় আফগানদের বিপক্ষে। জয় তুলেই বিশ্বকাপে শিরোপা জয়ের লড়াইয়ে ফিরতে চায় দলটি।
 
সে লক্ষ্যে রোববার বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৩টায় মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে উপমহাদেশের নবাগত ক্রিকেট শক্তি আফগানিস্তানের মোকাবেলা করবে দক্ষিণ আফ্রিকা।
 
বরাবরই যেকোনো টুর্নামেন্টে ফেভারিটের কাতারেই থাকে প্রোটিয়ারা। তবে এখনো পর্যন্ত ওয়ানডে অথবা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে কোনো শিরোপার দেখা পায়নি তারা। বড় কোনো টুর্নামেন্টে ভেঙে পড়ে বলে নিজেদের নামের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে ‘চোকার’ নামটি। তাই এবার এ দুর্নাম ঘোচাতে চায় তারা। সে লক্ষ্যে প্রথম ম্যাচে ব্যর্থ হওয়ার পর আফগানদের বিপক্ষে জয় পেতে মরিয়া প্রোটিয়ারা।
 
শুক্রবার ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ২২৯ রানের বিশাল সংগ্রহ তুলেছিল দক্ষিণ আফ্রিকা; কিন্তু বোলারদের ব্যর্থতার কারণে সেটি সহজেই টপকে যায় ইংল্যান্ড। জো রুটের ৮৩ রানের সুবাদে বিশ্ব টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের ইতিহাসে সর্বাধিক রান অতিক্রম করে জয় লাভের নতুন এক রেকর্ড রচনা করে ইংল্যান্ড। আর এতো বড় স্কোর পাওয়ার পরও হেরে যাওয়ায় ‘চোকার’ নামটি আবারো বারবার উচ্চারিত হচ্ছে প্রোটিয়াদের সামনে।
 
তবে বোলাররা ভালো না করতে পারলেও নিজেদের কাজ ঠিক মতোই করে যাচ্ছেন দক্ষিণ আফ্রিকান ব্যাটসম্যানরা। ক্রিকেটের নবীন এ দলের বিপক্ষে ব্যাটসম্যানরা আবারো জ্বলে উঠতে পারলে সহজ জয়ই পাওয়ার কথা। তবে বোলিংয়ে উন্নতি না করতে পারলে ভয়ংকর হয়ে উঠতে পারেন আসগর স্টানিকজাই কিংবা মোহাম্মদ শেহজাদ একাই। বিশ্বকাপে দুর্দান্ত ফর্মে রয়েছেন এ দুই আফগান। মূল পর্বের নিজেদের প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কার কাছে হারলেও দাপটের সঙ্গে খেলায় দর্শকদের প্রশংসাই কুড়িয়েছে।
 
নিজেদের মধ্যে এর আগে দল দুটি ২০১০ সালে একবার মোকাবেলা করেছিল। সে ম্যাচে আফ্রিকান ব্যাটসম্যানদের মাত্র ১৩৯ রানেই আটকে দিয়েছিল আফগান বোলাররা। যদিও সেবার আফ্রিকান বোলারের দাপটেই ম্যাচটি জিতেছিল প্রোটিয়ারা।
 
মরকেল, ল্যাঙ্গাভেল্ট ও স্টেইনের বোলিং তোপে ৮০ রানেই গুটিয়ে যায় আফগানিস্তান। তবে সেবার প্রথমবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেললেও এরপর গত ছয় বছরে আফগানদের ক্রিকেট এগিয়েছে অনেক। তাই রোববার একটি জমজমাট লড়াইয়ের প্রত্যাশাই করছে ক্রিকেটভক্তরা।

আরও সংবাদ