Widget by:Baiozid khan
  • Advertisement

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সম্মতি পেল রবি-এয়ারটেল

Published:2016-08-01 18:11:02    
একশ কোটি টাকা মাশুলে বাংলাদেশের দুই মোবাইল ফোন অপারেটর রবি ও এয়ারটেলের একীভূত হওয়ার প্রস্তাবে চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়।
এর ফলে দুই কোম্পানি একীভূত হয়ে বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম মোবাইল সেবাদানকারী কোম্পানি গঠনের প্রক্রিয়া অনেক দূর এগিয়ে গেল বলে জানিয়েছেন নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসির কর্মকর্তারা।
 
পরবর্তী প্রক্রিয়ায় দুই অপারেটরকে উচ্চ আদালতের কোম্পানি ম্যাটার বেঞ্চে যেতে হবে। সেখানে দুই অপারেটরের দেনা-পাওনার বিষয়টি সমাধান হবে। কারও কোনো আপত্তি না থাকলে সেখান থেকে অনুমতি পাওয়ার পর বিটিআরসি এ বিষয়ে চূড়ান্ত অনুমোদন দেবে।
 
বর্তমানে ভারত সফরে থাকা ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম সোমবার বলেন, “রবি ও এয়ারটেল একীভূত হতে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ যে মাশুল নির্ধারণ করেছিল- তাতে এবং এই প্রক্রিয়ার প্রস্তাবে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় সোমবার চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে।”
 
গত ১৩ জুলাই অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে দুই কোম্পানির তরঙ্গ একীভূত করার ফি এবং মার্জার ফি বা মাশুল নির্ধারণ করা হয়।
 
ওই সভায় উপস্থিত টেলিযোগাযোগ বিভাগ ও বিটিআরসি কর্মকর্তারা জানিয়েছিলেন, দুই অপারেটর একীভূত হতে ১০০ কোটি টাকা মাশুল নির্ধারণ করে অর্থ মন্ত্রণালয়ে।
 
তরঙ্গ একীভূত করতে ৫০৭ কোটি টাকা গুণতে হতে পারে জানিয়ে কর্মকর্তারা জানিয়েছিলেন, বিষয়টি চূড়ান্ত হবে এয়ারটেলের কী পরিমাণ টুজি তরঙ্গ একীভূত করবে রবি- তার ওপর।

আরও সংবাদ