Widget by:Baiozid khan
শিরোনাম:

ঢাকা Sun August 19 2018 ,

ঘুষ না দেওয়ায় বরাদ্দ কমের অভিযোগ মেয়র নাছিরের

Published:2016-08-11 08:50:12    
মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের ঘুষ না দেওয়ায় চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনে বরাদ্দ কম দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন।
নগরীতে বুধবার এক সভায় তিনি বলেছেন, ‘দাবি মতো কর্মকর্তাদের ঘুষ দিলে’ যেখানে ৩০০ থেকে ৩৫০ কোটি টাকা বরাদ্দ পাওয়া যেত, সেখানে তা না দেওয়ায় এসেছে মাত্র ৮০ কোটি টাকা।
 
বন্দর নগরীর মেয়র নাছির ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের চট্টগ্রাম নগর কমিটিরও সাধারণ সম্পাদক।
 
থিয়েটার ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে ‘চট্টগ্রাম নগর সংলাপে’ নাছির বলেন, “নগরীর উন্নয়নে আমার চেষ্টা ও আন্তরিকতার কোনো ঘাটতি নেই। কিন্তু এখানে অনেকের সহযোগিতা প্রয়োজন।
 
“আমাকে বলা হলো- করপোরেশনের জন্য যত টাকা চাই দেওয়া হবে থোক বরাদ্দ হিসেবে, তবে তার জন্য ৫ শতাংশ করে দিতে হবে।”
 
“এ টাকা পাব কোথায়- জানতে চাইলে ঠিকাদারদের কাছ থেকে ম্যানেজ করতে বলা হয়। আমি কীভাবে নেব? প্রশ্ন করলাম- আমি কি এটা লিখে দিতে পারব যে মন্ত্রণালয়ে দিতে হবে এই জন্য ৫ শতাংশ করে টাকা কাটব? বলে যে, না এটা বলা যাবে না।”
 
একটি প্রকল্প একনেকে অনুমোদনের পর প্রশাসনিক অনুমোদন পেতে দীর্ঘসূত্রতারও সমালোচনা করেন নাছির।
 
তিনি বলেন, বড়াইখাল থেকে শাহ আমানত সেতু পর্যন্ত খাল খনন প্রকল্প একনেকে পাস হয়েছে অনেক আগে। কিন্তু এরপরেও এর প্রশাসনিক অনুমোদন পেতে অনেক সময় চলে যাচ্ছে।
 
২০১৭ সালের জুনে এই প্রকল্পের মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা জানিয়ে নাছির বলেন, “আর দু মাস পরেই লেখালেখি হবে সিটি করপোরেশন ব্যর্থ। কিন্তু অর্থ মন্ত্রণালয় টাকা ছাড় না দিলে আমার কী করার আছে?”
 
নগরীকে বাসযোগ্য করে তুলতে সবার সহযোগিতা প্রয়োজন তিনি বলেন, জনগণ এগিয়ে না এলে সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন সম্ভব নয়।
 
কয়েকটি বেসরকারি সংস্থা ও সংগঠন আয়োজিত সংলাপে নাছির বলেন, উন্নয়নের জন্য  প্রকল্প গ্রহণ করলেও তা উচ্চ পর্যায় থেকে অনুমোদন নিতে দীর্ঘসূত্রতায় ভুগতে হয়।
 
“কাজ করার মানসিকতা থাকলেও আমলাতান্ত্রিক পরিবেশ, পরিস্থিতির গ্রাসে পড়ে আমাদের দেশের সকল উন্নয়ন বাস্তবায়নে সময়ক্ষেপণ চলছে। আসলে আমাদের মানসিকতার পরিবর্তন করতে হবে।”
 
সিসিসি সচিব আবুল হোসেনের সভাপতিত্বে সংলাপে বিশেষ অতিথি হিসেবে ব্ক্তব্য রাখেন সিডিএ চেয়ারম্যান আবদুচ ছালাম, চট্টগ্রাম ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক এ কে এম ফজলুল্লাহ, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব প্ল্যানার্স চট্টগ্রাম চ্যাপ্টারের সভাপতি আলী আশরাফ, বেসরকারি সংস্থা ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশের রিজিওনাল ফিল্ড ডিরেক্টর অঞ্জলী জাসিন্তা কস্তা ও ব্র্যাকের পরিচালক কে এ এম মোর্শেদ।
 
অনুষ্ঠানে নিরাপদ পানি ও পয়ঃনিশ্কাষণ ব্যবস্থার উন্নয়ন, বিল্ডিং কোড মেনে স্থাপনা তৈরি, নগরীতে পরিচ্ছন্ন রাখতে জনগণের অভ্যাসে পরিবর্তন আনতে উদ্যোগ, আবাসিক এলাকায় বাণিজ্যিক ও শিল্প স্থাপনা না করা, নারীদের জন্য পৃথক গণশৌচাগারের ব্যবস্থা করাসহ বিভিন্ন দাবি জানানো হয়।

আরও সংবাদ