Widget by:Baiozid khan
  • Advertisement

কর্মবিরতিতে ট্রেইলর শ্রমিকরা, কনটেইনার আনা-নেওয়া বন্ধ

Published:2016-08-22 16:28:40    
সাত দফা দাবিতে প্রাইম মুভার ট্রেইলর মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের ডাকে শুরু হওয়া কর্মবিরতিতে চট্টগ্রাম বন্দরে আনা-নেওয়ার কাজে দেখা দিয়েছে অচলাবস্থা।
 
 
সোমবার সকাল ৮টায় কর্মবিরতি শুরুর পর থেকে পরিষদের অধীনে থাকা প্রায় সাত হাজার প্রাইম মুভার চলছে না বলে সংগঠনের যুগ্ম আহ্বায়ক গোলাম মাওলা জানিয়েছেন।
 
“সাত দফা দাবিতে আমরা কর্মবিরতি শুরু করেছি। সকাল থেকে সব প্রাইম মুভার চলাচল বন্ধ,” বলেন এই শ্রমিকনেতা।
 
গোলাম মাওলা বলেন, সাত দফা দাবির বিষয়ে আলোচনার জন্য বিকাল ৩টায় মেয়র সময় দিয়েছেন। আলোচনার পর সিদ্ধান্ত জানানো হবে।  
ট্রেইলর চালক-মালিকদের দাবির মধ্যে আছে- প্রাইম মুভারের জন্য টার্মিনাল নির্মাণ, সিটি করপোরেশনের কর কমানো, প্রাইম মুভার ট্রেইলর অপারেটরদের হেলি লাইসেন্স প্রদান, ওভারলোড নিয়ন্ত্রণের নামে চাঁদাবাজি বন্ধ করা, মুভার ও ট্রেইলরের আলাদা নিবন্ধন বাতিল ইত্যাদি।
 
গোলাম মাওলা বলেন, ট্রেইলরের উপর সিটি করপোরেশনের নির্ধারিত কর ছিল ৫০০ টাকা। ২০১৫ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি থেকে তা বাড়িয়ে ১০ হাজার টাকা করা হয়েছে। বিআরটিএ ডকুমেন্ট ফি বাড়িয়েছে চারগুণ।
 
“মুভার (ইঞ্জিনসহ সামনের অংশ) ও ট্রেইলর (কন্টেইনার বহনকারী পেছনের অংশ) একই গাড়ির অংশ হলেও বিআরটিএ আলাদা রেজিস্ট্রেশনের আইন করেছে। যোগাযোগমন্ত্রী এ আইন সংশোধনের নির্দেশ দিলেও তা কার্যকর হয়নি।”
তিনি জানান, ট্রেইলরের জন্য চট্টগ্রামে কোনো টার্মিনাল না থাকায় বন্দরে প্রবেশের সময় গাড়িগুলোকে বিমান বন্দর সড়কে দাঁড় করিয়ে রাখতে হয়। এ কারণে শহরে নিত্য যানজটের সৃষ্টি হয়।
 
“এসব বিষয় নিয়ে ইতিমধ্যে জেলা প্রশাসক, বন্দর চেয়ারম্যান ও পুলিশ কমিশনারের সঙ্গে একাধিকবার আলোচনা হয়েছে। কিন্তু কোনো সমাধান হয়নি।”