Widget by:Baiozid khan
শিরোনাম:

ঢাকা Sun July 22 2018 ,

কোরবানির আগে চট্টগ্রামে গরুর মাংসের বাজার চড়া

Published:2016-09-09 14:20:03    
 কোরবানির ঈদের কয়েক দিন থাকতে চট্টগ্রামে গরুর মাংসের দাম অস্বাভাবিক বেড়েছে।
 
 
শুক্রবার নগরীর পাইকারি কাঁচা পণ্যের বৃহত্তম বাজার রিয়াজউদ্দিন বাজারে দেখা যায়, গরুর মাংস বিক্রির অধিকাংশ দোকান বন্ধ। যেগুলো খোলা আছে, সেগুলোতে মাংস বিক্রি হচ্ছে ৭০০ টাকা কেজিতে।
 
জানতে চাইলে মাংস বিক্রেতার আছাদ মিয়া  বলেন, “সামনে কোরবান। সব গরুর ঠিকানা এখন গরুর বাজার। যে গরু পাওয়া যাচ্ছে সেগুলোর দাম বেশি।
 
“ফলে গরুর মাংসের দামও বেড়েছে। গরু না পাওয়াতে বাজারের এ গলিতে ২০টি মাংসের দোকানের মধ্যে ১৫টিই বন্ধ। কোরবানির পর আশা করি, আগের দামে বিক্রি করতে পারব।”
 
গত সপ্তাহে হাঁড়ছাড়া গরুর মাংস প্রতি কেজি সর্বোচ্চ ৫৫০ টাকা ও হাঁড়সহ ৪৫০ টাকায় বিক্রি হয়।
 
দাম বাড়ার তালিকায় যুক্ত হয়েছে কাঁচামরিচসহ আরও কয়েকটি কাঁচা পণ্য। এর গত সপ্তাহে ৪০ টাকায় বিক্রি হওয়া কাঁচা মরিচ শুক্রবার ১০০ টাকায় বিক্রি হতে দেখা গেছে।
 
বেড়েছে শসা ও শিমের দামও; ৩৫ টাকা কেজি দরের গত সপ্তাহে বিক্রি হওয়া শসার দাম উঠেছে ৫৫ টাকায়, ৭০ টাকার শিম বিক্রি হচ্ছে ১২০ টাকায়।
 
কোরবানির অত্যাবশ্যকীয় মসলার দাম নতুন করে আর বাড়েনি। সপ্তাহ ‍দুয়েক আগে বাড়া রসুন ও আদা একই দামে বিক্রি হচ্ছে বাজারে।
 
ভারতীয় সাধারণ শুকনা মরিচ প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ১৮০ টাকায় আর ভারতীয় তেজা মরিচ মিলছে ১৯০ টাকায়।
 
লং বিক্রি হচ্ছে কেজিতে ১৩০০ টাকা, এলাচি মিলছে ১২০০ টাকায় কেজিতে, জিরা পাওয়া যাচ্ছে ৩০০ টাকায়, দারুচিনি পাওয়া যাচ্ছে ৩০০ টাকায়।
 
এগুলোর কোনোটিরই দাম বাড়েনি বলে জানিয়েছেন রিয়াজউদ্দিন বাজারে মশলার খুচরা বিক্রেতা রহমান মিয়া। 
 

আরও সংবাদ