Widget by:Baiozid khan
শিরোনাম:

ঢাকা Mon July 16 2018 ,

নতুন আবাসন প্রকল্পে এমপিরা অগ্রাধিকারে: পূর্তমন্ত্রী

Published:2016-10-06 08:57:11    
রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক) নতুন করে আবাসিক প্রকল্প করার পরিকল্পনা করছে জানিয়ে গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, ওই প্রকল্পে নতুন সংসদ সদস্যদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে প্লট বরাদ্দ দেওয়া হবে।
 
 
বুধবার সংসদে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, “রাজউক ইতোমধ্যে একটি জায়গা দেখেছে, আড়াই থেকে তিন হাজার একর হবে। সেই জায়গা অধিগ্রহণ করা হচ্ছে। অধিগ্রহণ করা হলে নতুন সংসদ সদস্যদের (এমপি) অগ্রাধিকার ভিত্তিতে প্লট দেওয়া হবে।”
 
তবে কোন এলাকায় জমি অধিগ্রহণ করা হচ্ছে সে বিষয়ে কিছু বলেননি তিনি।
 
এর আগে সম্পূরক প্রশ্ন করতে উঠে সংরক্ষিত আসনের সাবিনা আক্তার তুহিন বলেন, “পুরনো সংসদ সদস্যরা সাত কাঠা করে প্লট পেয়েছে, আর আমরা যারা নতুন তাদের কপালে পাঁচ কাঠাও জোটেনি।
 
“নতুনদের প্রতি মন্ত্রী নির্দয় কেন? উনি এখানে উঁচু গলায় বলে দেন- কবে আমরা প্লট পাব। আমরা উনার গলায় ফুলের মালা দেব।”
 
গণপূর্ত মন্ত্রী জবাব দিতে উঠলে সংসদে সভাপতিত্বকারী ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়া বলেন, “মাননীয় মন্ত্রী এটা হাউজের সেন্টিমেন্ট।”
 
গৃহায়ন মন্ত্রী বলেন, “ফুলের মালা কে না চায়? কিন্তু রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) যেসব প্রকল্প আছে সেগুলোর বয়স ১৮, ২০ ও ২৫ বছর হয়ে গেছে। যে তিনটি প্রকল্প চলছে তাতে আর প্লট নেই।”
 
প্লটের প্রতি এমপিদের আগ্রহ নিয়ে মন্ত্রী বলেন, “আমরা সবাই জায়গা চাই। চীনে কিন্তু ব্যক্তির জন্য কোনো জায়গা নেই। তারা ৩০ তলা, ৪০ তলা ভবন করে এক সঙ্গেই সবাই থাকেন।
 
“আমরা ছোট পুটি আমাদের জায়গা কম। তবুও আমি বলছি, আমাদের রাজউক ইতোমধ্যে রাজধানীতে একটি নতুন জায়গা দেখছে, প্রায় আড়াই হাজার থেকে তিন হাজার একর হবে। সেই জায়গা অধিগ্রহণ করছি। অধিগ্রহণ করা হলে নতুন সংসদ সদস্যদের (এমপি) অগ্রাধিকার ভিত্তিতে দেওয়া হবে।”
 
এ প্রেক্ষাপটে গত বাজেট অধিবেশনেই সংসদ সদস্যদের রাজউকের ফ্ল্যাটের পাশাপাশি প্লটও দেওয়ার কথা বলেন গণপূর্তমন্ত্রী।
 
অপর এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, রাজউকের ঝিলমিল আবাসিক প্রকল্পে আরও ১৯ সংসদ সদস্যকে প্লট দেওয়া হচ্ছে। এর আগে পূর্বাচল নতুন প্রকল্প এবং সম্প্রসারিত উত্তরা তৃতীয় প্রকল্পে ২৫৭ জন সংসদ সদস্যকে প্লট দেওয়া হয়।
 
সরকারি প্লট না পাওয়া সংসদ সদস্যদের তালিকা রাজউকে না থাকার কথাও বলেন তিনি।
 
প্রশ্নোত্তরে গণপূর্তমন্ত্রী বলেন, পূর্বাচল নতুন শহর প্রকল্পের উন্নয়নলূক কাজ প্রায় ৬০ শতাংশ বাস্তবায়িত হয়েছে। প্রকল্পের প্রায় ২৫ হাজার প্লটের মধ্যে ১৩ হাজারের মতো প্লট বরাদ্দ গ্রহীতাদের মধ্যে হস্তান্তর করা হয়েছে।
 
গত বছরের জুলাই থেকে সেখানে ইমারত নির্মাণের নকশা অনুমোদন শুরু হয়েছে। বিদ্যুতায়ন এবং পানি ও পয়ঃনিষ্কাশনের কাজ চলছে।
 
ভূমি উন্নয়ন ও অন্যান্য অবকাঠামো নির্মাণ করে আগামী ২০১৮ সালের জুনের মধ্যে পূর্বাচলকে পূর্ণাঙ্গ শহর হিসেবে গড়ে তোলার পরিকল্পনা রয়েছে।
 
এদিকে সংসদ কাজে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী জানান, ওয়ারেন্ট অব প্রিসিডেন্স অনুযায়ী সংসদ সদস্যদের অবস্থানক্রম কখনও নিচে নামানো হয়নি।
 
ইসরাফিল আলমের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ওয়ারেন্ট অব প্রিসিডেন্স অনুযায়ী ১৯৭২ সালে সংসদ সদস্যদের অবস্থানক্রম ছিল অষ্টাদশ। ১৯৭৪ সালে জারি করা ওয়ারেন্ট অব প্রিসিডেন্সে সংসদ সদস্যদের অবস্থান ছিল পঞ্চদশ স্থানে। বর্তমানে বলবৎ ১৯৮৬ সালের ওয়ারেন্ট অব প্রিসিডেন্স অনুযায়ী এমপিদের অবস্থান হচ্ছে ত্রয়োদশ।
 

আরও সংবাদ