Widget by:Baiozid khan
শিরোনাম:

ঢাকা Wed September 26 2018 ,

৭ উইকেট হারিয়ে পিছিয়ে থেকেই দ্বিতীয় দিন শেষ নিউজিল্যান্ডের

Published:2017-01-21 17:43:10    
দ্বিতীয় টেস্টে ৭ উইকেট হারিয়ে ২৯ রানে পিছিয়ে থেকেই দ্বিতীয় দিন শেষ করল নিউজিল্যান্ড। দুর্দান্তভাবে ইনিংস শুরু করা নিউজিল্যান্ড রাব্বি ও সাকিবের ঝটকায় দিন শেষে পিছিয়ে গেল। শেষ সময় বৃষ্টির কারণে খেলা বন্ধ না থাকলে হয়ত আরো বাজে কিছু হজম করতে হত কিউই ব্যাটসম্যানদের। বৃষ্টির আগ পর্যন্ত ৭ উইকেট হারিয়ে নিউজিল্যান্ডের সংগ্রহ ২৬০ রান।
 
প্রথম দিন টসে জিতে বাংলাদেশকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় নিউজিল্যান্ড। এদিন সৌম্য সরকারের ৮৬ ও সাকিব আল হাসানের ৫৯ রানের পর অভিষেক টেস্ট খেলতে নামা নুরুল হাসানের ৪৭ রানের ওপর ভর করে ২৮৯ রান করে বাংলাদেশ। বাংলাদেশ দলের ওপেনার ও বর্তমান অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করা তামিম আউট হয়ে যায় ৫ রানে। সেই সঙ্গে ব‌্যাট হাতে ব্যর্থ হন মাহমুদুল্লাহ, সাব্বির, মিরাজ ও শান্ত। নিউজিল্যান্ডের পক্ষে সর্বোচ্চ ৫ উইকেট শিকার করেন টিম সাউদি।
 
প্রথম দিন বোলারদের এমন সফলতার পর দ্বিতীয় দিনের শুরুতে নিউজিল্যান্ডের ব্যাটসম্যানেরাও ছিল বেশ উজ্জ্বল। ব্লাকক্যাপার্সদের উদ্বোধনী জুটি ভাঙ্গে ৪৫ রান যোগ করে। এরপর বাংলাদেশের পক্ষে জোড়া আঘাত হানেন কামরুল ইসলাম রাব্বি। এক ওভারে রেভেল ও উইলিয়ামসমনকে সাজঘরে ফেরান তিনি। এরপর আবারো বাংলাদেশের সামনে হাজির হয় ল্যাথাম দুঃস্বপ্ন। শেষ পর্যন্ত ল্যাথামকে ৬৮ রানে সাজঘরে ফেরান তাসকিন। অন্যদিকে মিরাজের বলে ক্যাচ আউট হন টেইলর। বিকেলের চা পানের বিরতির আগ পর্যন্ত এই ছিল স্কোর। ৪ উইকেট হারিয়ে ২৫০ রান পার হয়ে যায় নিউজিল্যান্ড। স্পষ্টভাবেই তখন খেলায় অনেক পিছিয়ে বাংলাদেশ। কিন্তু সেখান থেকেই বাংলাদেশকে ম্যাচে ফেরান সাকিব আল হাসান। নিজের পরপর দুই ওভারে নিউজিল্যান্ডের ৩ ব্যাটসম্যানকে সাজঘরে ফেরান তিনি। এরমধ্যে এক ওভারের তৃতীয় ও শেষ বলে সাজঘরে ফেরান ওয়াটলিং ও গ্রান্ডহোমিকে।
 
বাংলাদেশের বোলারদের এই পাল্টা আক্রমণের মুহূর্তে বৃষ্টি বাধায় ম্যাচ সাময়িক বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয় আম্পায়ার নিজেল লং ও পল রেইফেল। শেষ পর্যন্ত বৃষ্টি আর না থামায় দ্বিতীয় দিনের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।
 
বাংলাদেশের পক্ষে এদিন সর্বোচ্চ ৩ উইকেট নিয়ে এগিয়ে আছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। তার পরেই আছেন কামরুল ইসলাম রাব্বি। এ ছাড়াও একটি করে উইকেট নেন তাসকিন ও মিরাজ।

আরও সংবাদ