Widget by:Baiozid khan

পরকীয়ার প্রতিবাদ করায় অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে হত্যা

Published:2017-05-07 01:12:25    
হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলায় পরকীয়ার প্রতিবাদ করায় স্বামীর মারধরে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীর মৃত্যু হয়েছে।
 
শনিবার বিকালে উপজেলার আদাঐর ইউনিয়নের মৌজপুর গ্রাম থেকে ওই গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।
 
এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুজনকে আটক করেছে পুলিশ। ঘটনার পর থেকে স্বামী পলাতক রয়েছেন।
 
নিহত গৃহবধূ সীমা আক্তার (২১) উপজেলার মৌজপুর গ্রামের চা স্টল ব্যবসায়ী জালাল মিয়ার স্ত্রী। সীমা ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর উপজেলার গোকর্ণ গ্রামের দেওয়ান আলীর মেয়ে।
 
সীমার চাচাত বোন সামসুন নাহার জানান, প্রায় আট মাস আগে মৌজপুর গ্রামের মৃত ভুট্টো মিয়ার ছেলে জালাল মিয়ার সঙ্গে সীমার বিয়ে হয়। এর মধ্যে সীমা পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েন।
 
তিনি জানান, বিয়ের পর সীমার কাছে জালালের পরকীয়ার বিষয়টি ধরা পরে। তখন থেকে সীমা প্রতিবাদ শুরু করে। এতে জালাল প্রায়ই সীমাকে শারীরিক নির্যাতন করত।
 
এর জের ধরে শনিবার বিকালে তাদের ঝগড়া হয়। এ সময় জালাল মারধর করলে সীমা মারা যায় বলে জানান সামসুন নাহার।
 
মাধবপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সাজিদুল ইসলাম পলাশ জানান, নিহত সীমার শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তিনি অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন বলে মনে হচ্ছে। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ মর্গে পাঠানো হয়েছে।
 
ওসি মোকতাদির হোসেন জানান, ঘটনাস্থল থেকে ওই গৃহবধূর শাশুড়ি সুফিয়া আক্তারসহ দুজনকে আটক করা হয়েছে। তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

আরও সংবাদ