Widget by:Baiozid khan

উচ্চ বুদ্ধিমত্তা প্রসঙ্গে-

Published:2017-07-18 20:31:32    

বুদ্ধিমত্তার বিষয়টি আমাদের সমাজে খুবই গুরুত্ব পেয়ে থাকে। অধিকাংশ মানুষের কাছেই উচ্চ বুদ্ধিমত্তার লক্ষণ হলো কোন তথ্যকে দীর্ঘ সময় ধরে পরিষ্কারভাবে মনে রাখার ক্ষমতা। নিউরো সায়েন্টিস্টরাও দীর্ঘ সময় ধরে এমন ধারণাই পোষণ করে আসছিলেন। অন্যদিকে কোনকিছুকে ভুলে যাওয়াকে মনে করা হতো তথ্য সংরক্ষণ ও পুনরুদ্ধারে মস্তিষ্কের অক্ষমতা হিসেবে। তবে পুরনো এ ধারণাকে চ্যালেঞ্জ করা হয়েছে সাম্প্রতিক এক গবেষণা প্রতিবেদনে। 
প্রতিবেদনে বলা হয়, মানব মস্তিষ্কে তথ্য সংরক্ষণের উদ্দেশ্য কোনো স্মৃতির নিখুঁত জাবরকাটা নয়, বরং স্মৃতি ভা-ারের গুরুত্বপূর্ণ ও মূল্যবান অংশকে ব্যবহার করে বুদ্ধিদীপ্ত সিদ্ধান্ত নেয়া। ফলে বলা চলে কোনভাবে মনে না রেখে প্রয়োজনীয় অংশকে কাজে লাগানোই উচ্চ বুদ্ধিমত্তার লক্ষণ। সায়েন্স ডেইলিতে প্রকাশিত খবরটিতে বলা হয়, কানাডিয়ান ইন্সটিটিউট ফর অ্যাডভান্স রিসার্চের দুই ফেলোর গবেষণায় উঠে আসে, মানুষের ভুলে যাওয়া স্বভাবের অর্থই হলো মস্তিষ্কের সংগ্রহ করা নিত্য-নতুন তথ্যের ভিড়ে পুরনো স্মৃতিগুলো চাপা পড়ে যাচ্ছে। আসলে মস্তিষ্কের মূল কাজ তথ্যকে মনে রাখা নয়। বরং এর গুরুত্বপূর্ণ ও মূল্যবান অংশগুলো কাজে লাগিয়ে সঠিক ও বুদ্ধিদীপ্ত সিদ্ধান্ত নেয়াটাই মস্তিষ্কের স্মৃতি সংরক্ষণের উদ্দেশ্য।
গবেষকদের এমন বিশ্লেষণ বেশ গুরুত্বপূর্ণ বলেই আমাদের কাছে মনে হয়েছে। গবেষকরা তো  বলছেন, মস্তিষ্ক যেভাবে গুরুত্বহীন তথ্য ভুলে গিয়ে বাস্তব জীবনে সিদ্ধান্ত নেয়ার ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় তথ্যের উপর জোর দেয় তা অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। কিন্তু আমরা যদি আমাদের সমাজের দিকে তাকাই তাহলে দেখা যাবে, আমাদের বহুল পরিচিত গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিত্ব বিশেষ করে বহু রাজনীতিবিদ যেন বিজ্ঞানীদের এমন বিশ্লেষণের বাইরে অবস্থান করছেন। তারা তো গুরুত্বপূর্ণ ও মূল্যবান বিষয়গুলো ভুলে গিয়ে বরং গুরুত্বহীন বিষয়গুলো নিয়েই মাঠ গরম করে চলেছেন। তাহলে তাদের মস্তিষ্ক কি সুস্থ ও স্বাভাবিক অবস্থায় নেই? এই বিষয়টিকে গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করলে তো বলতে হয় যে, আমাদের সমাজের বহু রাজনীতিবিদ ও রথী-মহারথীরা উচ্চ বুদ্ধিমত্তার স্তরে নেই। আমাদের বহু দুর্ভোগের কারণ কি এখানেই নিহিত?

আরও সংবাদ