Widget by:Baiozid khan
শিরোনাম:

ঢাকা Sun June 24 2018 ,

১১ মার্চ সোহরাওয়ার্দীতে মহাসমাবেশ করবে বিএনপি

Published:2018-03-01 23:05:40    

আগামী ১১ মার্চ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে মহাসমাবেশ করবে বিএনপি। আজ বৃহস্পতিবার নয়া পল্টনের অফিসে এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ।

এদিকে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দেয়া রায়ের ঘটনা প্রসঙ্গে দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, বাংলাদেশে বিচারব্যবস্থাকে প্রহসনে পরিণত করেছে সরকার। বিএনপি চেয়ারপারসনের জামিন পাওয়ায় দেরি করতে সরকার নানা কৌশল নিচ্ছে। এ ছাড়া খালেদা জিয়ার মামলায় ‘আইনজীবী হিসেবে লড়ার অনুরোধ ড. কামাল হোসেন ফিরিয়ে দিয়েছেন’ মর্মে প্রকাশিত সংবাদকে সত্য নয় বলে তিনি মন্তব্য করেন। গতকাল রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এসব বলেন। এ সময় বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, সহদফতর সম্পাদক বেলাল আহমেদ, নির্বাহী কমিটির সদস্য আমিনুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

খালেদা জিয়ার মামলা বিষয়ে ড. কামাল হোসেনের সাথে সাাৎ নিয়ে গণমাধ্যমে ভুল খবর এসেছে দাবি করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, গত মঙ্গলবার ড. কামাল হোসেনের সাথে খালেদা জিয়ার মামলার বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে। তিনি মনোযোগ দিয়ে আমাদের কথা শুনেছেন। সেখানে অনেক বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে। আমরা রায়ের একটা কপিও তাকে দিয়েছি। তিনি বিদেশে ছিলেন। ড. কামাল হোসেন বলেছেন, রায়ের কপি পড়ে তিনি পরামর্শ দেবেন। কিন্তু ড. কামাল হোসেন খালেদা জিয়ার মামলায় লড়ার অনুরোধ প্রত্যাখ্যান করেছেন, এটা পুরোপুরি মিথ্যা। এ রকম ভুল খবরের মাধ্যমে শুধু বিএনপি নয়, ড. কামাল হোসেনের মতো আইনজীবীকেও ছোট করা হয়েছে।

সংবাদটি প্রকাশের আগে সাংবাদিকদের তার সাথে কিংবা কামাল হোসেনের সাথে কথা বলা উচিত ছিল মন্তব্য করে মির্জা ফখরুল বলেন, একটি পত্রিকায় বড় করে লিখে দিয়েছে যে, ড. কামাল প্রত্যাখ্যান করেছেন। এটা ঠিক না। উনি অত্যন্ত সিম্পিথেটিক্যালি সব কথা শুনেছেন এবং উষ্মা প্রকাশ করে বলেছেন, এই ধরনের একটা মামলায় সাজা দেয়াকে তিনি কখনোই পছন্দ করেননি।
জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়াকে আদালত ৫ বছরের সাজার রায় দিলে গত ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে কারাবন্দী রয়েছেন খালেদা জিয়া। রায়ের সত্যায়িত অনুলিপি ১০ দিন পর পেয়ে হাইকোর্টে আপিল করে জামিন চেয়েছেন তিনি। হাইকোর্ট বলেছেন, নি¤œ আদালতের নথি পাওয়ার পর এই বিষয়ে আদেশ দেবেন।

এই মামলায় খালেদা জিয়ার জামিনে দেরির জন্য সরকারকে বিএনপি দায়ী করার পর আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, ‘বিএনপির আইনজীবীদের দোষেই জামিনে দেরি হচ্ছে’। মন্ত্রীর এমন বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, আমাদের আইনজীবীরা প্রথিতযশা; তারা দীর্ঘ দিন ধরে দতা ও যোগ্যতা দিয়ে মামলা পরিচালনা করছেন। সমস্যাটা সেই জায়গায় না। সমস্যাটা হচ্ছে, তারা (সরকার) ছক করে নিয়েছে। সেই ছক অনুযায়ী তারা মামলা করেছে। বিচার কী হবে, রায় কী হবে সব কিছুই পূর্বনির্ধারিত। প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহাকে পদত্যাগে বাধ্য করার তিন মাস পর খালেদা জিয়ার মামলার রায়ের আগের দিন নতুন প্রধান বিচারপতি নিয়োগের বিষয়টিও ইঙ্গিতপূর্ণ। ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতিকে সুপারসিড করে অন্যজনকে প্রধান বিচারপতি করা হলো, সেইদিন থেকেই আমরা বুঝে গেছি, দেশে বিচারবিভাগ পুরোপুরি সরকারের নিয়ন্ত্রণে চলে গেল। এখন বিচার এদেশে প্রহসনে পরিণত হয়েছে।

আরও সংবাদ