Widget by:Baiozid khan
  • Advertisement

সঙ্ঘাত করতে চাইলে ফল ভালো হবে না : নাসিম

Published:2018-09-26 21:11:58    

নিজস্ব প্রতিবেদক: 

আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, বিএনপি আগামী জাতীয় নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দেশে সঙ্ঘাত করতে চাইলে তার ফল ভালো হবে না।
তিনি বলেন, ‘আমরা শান্তি চাই, সঙ্ঘাত চাই না, নির্বাচন চাই, কোন সহিংসতা চাই না। তবে কেউ সংঘাত করতে চাইলে তার পরিণাম ভালো হবে না।’

স্বাস্থ্যমন্ত্রী নাসিম আরো বলেন, রাজধানীর মহানগর নাট্যমঞ্চে ২৯ সেপ্টেম্বর ১৪ দলের পূর্ব ঘোষিত কর্মসূচী। বিএনপির সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের কর্মসূচী ছিল ২৭ সেপ্টেম্বর। তারা (বিএনপি) কারো সঙ্গে কোন কথা না বলেই তাদের কর্মসূচীর সময় পরিবর্তন করেছে। তারা পায়ে পাড়া দিয়ে ঝগড়া করতে চাচ্ছে।
কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম বুধবার বিকেলে রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে বাংলাদেশ বাস্তুহারা লীগের উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত বিশ তলা ভবনে বস্তিবাসীদের পুনর্বাসন উপলক্ষে আয়োজিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন।
সংগঠনের সভাপতি তাফাজ্জল হোসেন বাবুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য মোজাফফর হোসেন পল্টু ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আবু আহম্মেদ মান্নাফী।
মোহাম্মদ নাসিম বলেন, সংবিধান অনুযায়ী এ বছরের ডিসেম্বর মাসে আগামী জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এ নির্বাচন সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণ ভাবে অনুষ্ঠিত হবে। জনগণ তাদের পছন্দের দলকে ভোট দিয়ে বিজয়ী করবে।

তিনি বলেন, কিন্তু নির্বাচন এলেই বিএনপি জামায়াত নির্বাচন বানচালের জন্য চক্রান্ত শুরু করে। তারা সংবিধান ও আইন কিছুই মানে না। তারা আবার জনবিচ্ছিন্ন নেতাদের নিয়ে ঘুঁট পাকিয়েছে।
নাসিম বলেন, তারা (বিএনপি) শান্তিপূর্ণ দেশকে অশান্ত করতে চায়, নৈরাজ্য সৃষ্টি করতে চায়। এ লক্ষ্যে তারা চত্রান্তে লিপ্ত রয়েছে। কিন্তু বার বার ঘুঘুকে আর ধান খেতে দেওয়া হবে না।
তিনি বলেন, জনগণ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে রয়েছে। তাই পৃথিবীর এমন কোন শক্তিই নির্বাচনকে ঠেকাতে পারবে না।

আগামী ২৯ নভেম্বর মহানগর নাট্যমঞ্চে ১৪ দলের সভায় উপস্থিত থাকার জন্য তিনি দলীয় নেতা-কর্মীদের আহবান জানিয়ে বলেন, সেখান থেকে পরবর্তী কর্মসূচী ঘোষণা করা হবে। অক্টোবর মাসে সারাদেশে জেলা ও উপজেলায় সভা-সমাবেশ এবং রাজধানীসহ সারাদেশ কেন্দ্রীয় ১৪ দলের দখলে রাখা হবে বলে জানান তিনি।

আরও সংবাদ