Widget by:Baiozid khan
  • Advertisement

খাসোগির প্রেমিকা এখন কোথায়?

Published:2018-10-25 00:05:39    

বাস ডেস্ক : সৌদি নাগরিক ও ওয়াশিংটন পোস্টের কলামিস্ট জামাল খাসোগিকে হত্যার দিন তার সাথে ইস্তাম্বুলে সৌদি কনসুলেটে গিয়েছিলেন খাসোগির প্রেমিকা হ্যাতিস সেঙ্গিজ। জানা যায়, তুর্কি নাগরিক হ্যাতিসকে সাথে নিয়েই তাদের বিয়ে সংশ্লিষ্ট কাগজপত্রের জন্য সেদিন সেখানে গিয়েছিলেন খাসোগি। হ্যাতিসকে বাইরে রেখে একাই ভেতরে প্রবেশ করেছিলেন তিনি। কিন্তু দীর্ঘ সময় পরও তিনি ফিরে না আসায় সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করেন হ্যাতিস।

প্রথমে অস্বীকার করার পর পরে অবশ্য সৌদি আরব স্বীকার করেছে যে, দূতাবাসের ভেতরেই তাকে হত্যা করা হয়েছে।

এ ঘটনায় আলোড়ন চলছে বিশ্বজুড়ে। বিভিন্ন দেশ এ ঘটনার নিন্দা জানিয়েছে। মিত্র যুক্তরাষ্ট্রও সৌদি আরবের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার হুমকি দিয়েছে। সৌদি আরবের পাল্টা হুমকিতে পরিস্থিতি এখন ঘোলাটে।

হত্যাকাণ্ডের বিষয়টি বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করছে তুরস্ক। মঙ্গলবার দেশটির প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগান পার্লামেন্টে এ বিষয়ে বিভিন্ন বিষয় তুলে বলেন, তিনি এ ঘটনার আরো গভীরে যাবেন।

সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের কঠোর সমালোচক ও ওয়াশিংটন পোস্টের সাংবাদিক জামাল খাসোগি গত ২ অক্টোবর ইস্তাম্বুলে সৌদি আরবের কনসুলেটে প্রবেশ করেন। সেখান থেকে কিছু কাগজপত্র সংগ্রহ করে প্রেমিকাকে বিয়ে করার কথা ছিল তার। হ্যাতিস সেদিন তার প্রেমিকের ফিরে আসার অপেক্ষায় কনসুলেটের বাইরে অপেক্ষমাণ ছিলেন। জামাল খাসোগি ফেরত না আসায় তিনিই মিডিয়াকে প্রথম জানান নিখোঁজের ঘটনা। তারই ধারাবাহিকতায় তদন্তে বেরিয়ে আসে খাসোগিকে সৌদি আরব হত্যা করেছে ওই কনসুলেটের ভিতরে। এর ফলে হ্যাতিসের জীবন নিয়ে শঙ্কা দেখা দিয়েছে। তাই তুরস্ক সরকার তাকে নিরাপত্তা দিচ্ছে।

হ্যাতিস সেঙ্গিজকে ২৪ ঘন্টার নিরাপত্তা দিচ্ছে তুরস্ক। তুরস্কের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা আনাদোলু এজেন্সি গত ২১ অক্টোবর এমনটাই জানিয়েছে।

ইস্তাম্বুল গভর্নরের অফিসে থেকে এ জন্য একটি নির্দেশ দেয়া হয়েছে। বলা হয়েছে, হ্যাতিস সেঙ্গিজকে নিরাপত্তা দিতে হবে। এ নির্দেশের ফলে ইস্তাম্বুল পুলিশ ডিপার্টমেন্ট তাকে নিরাপত্তা দেবে।

উল্লেখ্য, তুর্কি নাগরিক হ্যাতিস ইস্তাম্বুলে একজন ডক্টরাল স্টুডেন্ট।

২০ অক্টোবর সৌদি আরব খাসোগিকে হত্যার কথা স্বীকার করার পর একটি মর্মস্পর্শী টুইট করেন হ্যাতিস। তিনি লিখেন : ‘তারা তোমার শরীরটাকে পৃথিবী থেকে তুলে নিয়ে গেছে কিন্তু তোমার সুন্দর হাসিটি পৃথিবীতে চিরকাল রয়ে যাবে’। সূত্র : বিজনেস ইনসাইডার

 

আরও সংবাদ