Widget by:Baiozid khan
  • Advertisement

সংলাপের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাল ঐক্যফ্রন্ট

Published:2018-10-29 20:11:32    

বিশেষ প্রতিবেদক: প্রধানমন্ত্রীর সংলাপে বসার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে ঐক্যফ্রন্ট নেতা ও বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ। সমসাময়িক রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে নবগঠিত রাজনৈতিক জোট জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের বৈঠকের ব্রিফিংকালে তিনি একথা বলেন। এসময় মওদুদ আহমেদ বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে সাজা দেয়ায় নিন্দা জানিয়ে অবিলম্বে তাকে মুক্তির দাবি জানান।

সমসাময়িক রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে নবগঠিত রাজনৈতিক জোট জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের বৈঠক চলছে। বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদের চেম্বারে এই বৈঠক চলছে বলে জানা গেছে। তবে বৈঠকের সুনির্দিষ্ট আলোচ্য বিষয় নিয়ে কিছু জানা যায়নি তাৎক্ষণিকভাবে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদের সভাপতিত্বে এই বৈঠকে রয়েছেন জেএসডির আ স ম আবদুর রব ও আবদুল মালেক রতন, গণফোরামের সুব্রত চৌধুরী, মোস্তফা মহসিন মন্টু ও মোকাব্বির খান, নাগরিক ঐক্যের মাহমুদুর রহমান মান্না ও জাহেদুর রহমান, জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার সুলতান মো. মনসুর ও আ ব ম মোস্তফা আমিন। গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি জাফরুল্লাহ চৌধুরীও এই বৈঠকে রয়েছেন।

এদিকে সোমবার সন্ধ্যায় আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জানিয়েছেন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগেই জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সাথে সংলাপে বসবেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সোমবার আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমণ্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলে, সংলাপের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দরজা সবার জন্য সব সময় খোলা। পার্টির পক্ষ থেকে আমরা জানিয়ে দিচ্ছি এই সংলাপে আমরা সম্মত।

সংলাপের স্থান ও সময় কিভাবে নির্ধারণ করা হবে সে ব্যাপারে তিনি কিছু বলেননি। ওবায়দুল কাদের বলেন, খুব শীঘ্রই জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে আওয়ামী লীগের এই সংলাপের স্থান ও সময় জানিয়ে দেয়া হবে।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ১১ দফা কর্মসূচি ও ৭ দফা দাবি মেনে নেয়া হবে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, কোন দাবি মেনে নেয়া হবে আর কোনটা মেনে নেয়া হবে না আমরা এখন এ বিষয়ে কিছুই বলতে চাইনা, সংলাপে সব বিষয়ে আলোচনা হবে।

 

আরও সংবাদ