Widget by:Baiozid khan
শিরোনাম:

ঢাকা Sat October 23 2021 ,

  • Techno Haat Free Domain Offer

অস্ত্র ও মাদক মামলায় সম্রাটের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন ৭ জানুয়ারি

Published:2020-12-01 10:14:51    
অস্ত্র ও মাদক মামলায় ক্যাসিনো হোতা ইসমাইল চৌধুরী সম্রাটের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের জন্য ৭ জানুয়ারি দিন ধার্য করেছেন আদালত।
সোমবার ঢাকার প্রথম অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক ফয়সল আতিক বিন কাদের অস্ত্র মামলায় ও ঢাকার সপ্তম অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ তেহসিন ইফতেখার মাদক মামলায় পরবর্তী এদিন ধার্য করেন।
আজ দু’মামলার অভিযোগ গঠন শুনানির জন্য দিন ধার্য ছিল।
মাদক মামলায় সম্রাট ছাড়াও তার সহযোগি এনামুল হক আরমানকে আসামি করা হয়।
মাদক মামলায় আরমানকে কারাগার থেকে হাজির করা হয়। স¤্রাট হাসপাতালে ভর্তি থাকায় তাকেও আদালতে হাজির করা হয়নি। এজন্য রাষ্ট্রপক্ষ সময়ের আবেদন করেন। বিচারক সময়ের আবেদন মঞ্জুর করে নতুন এদিন ধার্য করেন।
এরআগে ২০ অক্টোবর ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশ অস্ত্র ও মাদক মামলার অভিযোগপত্র আমলে নেন। এরপর বিচারক দু’মামলার অভিযোগ গঠনের জন্য এদিন ধার্য করেন।
গত ৬ নভেম্বর ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে অস্ত্র মামলায় চার্জশিট দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা র‌্যাব-১ এর উপপরিদর্শক শেখর চন্দ্র মল্লিক।
গত ৯ ডিসেম্বর রাজধানীর রমনা থানায় মাদক আইনে করা মামলায় সম্রাট ও এনামুল হক আরমানের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করেন মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা র‌্যাব-১ এর উপপরিদর্শক আবদুল হালিম।
৬ অক্টোবর কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের আলকরা ইউনিয়নের কুঞ্জুশ্রীপুর গ্রামে আত্মগোপনে থাকা সম্রাটকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। তার সঙ্গে আরমানকেও গ্রেফতার করা হয়। পরে ঢাকায় এনে তাদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদও করা হয়।
৬ অক্টোবর দুপুরে র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলমের নেতৃত্বে র‌্যাবের একটি দল কাকরাইলে ভূঁইয়া ট্রেড সেন্টারে তালা ভেঙে সম্রাটের কার্যালয়ে অভিযান শুরু করে। নিজ কার্যালয়ে পশুর চামড়া রাখার দায়ে তার ছয় মাসের জেল দিয়ে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। এছাড়া র‌্যাব-১ বাদি হয়ে রমনা মডেল থানায় সম্রাটের বিরুদ্ধে দু’টি মামলা করে। দুই মামলার বাদি র‌্যাব-১ এর ডিএডি আব্দুল খালেক।
৬ নভেম্বর ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে অস্ত্র মামলায় চার্জশিট দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা র‌্যাব-১ এর উপপরিদর্শক শেখর চন্দ্র মল্লিক। চার্জশিটে তদন্ত কর্মকর্তা উল্লেখ করেন, সম্রাটের কাছ থেকে উদ্ধার হওয়া আগ্নেয়াস্ত্রের কোনো বৈধ কাগজপত্র পাওয়া যায়নি। তিনি লাইসেন্সবিহীন অস্ত্র নিজ হেফাজতে ও নিয়ন্ত্রণে রাখায় তার বিরুদ্ধে আনা অপরাধ প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হয়েছে।
গত বছরের ৯ ডিসেম্বর রাজধানীর রমনা থানায় মাদক আইনে করা মামলায় ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট ও এনামুল হক আরমানের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করেন মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা র‌্যাব-১ এর উপপরিদর্শক আবদুল হালিম।

আরও সংবাদ