Widget by:Baiozid khan
শিরোনাম:

ঢাকা Mon July 16 2018 ,

পাঁচ বছরেও শেষ হয়নি টেকনাফের ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশন

Published:2013-05-27 16:35:52    

টেকনাফ প্রতিনিধি: সীমান্ত উপজেলায় পাঁচ বছরেও সম্পূর্ণ নির্মান কাজ শেষ হয়নি টেকনাফের ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশন।

রোহিঙ্গাসহ প্রায় ৫ লাখের মত মানুষের অগ্নিঝুকি মোকাবেলায় কক্সবাজার ৪ আসনের সাংসদ আব্দুর রহমান বদি সিআইপির বদন্যতায় টেকনাফ সদর ইউনিয়নের গোদার বিল এলাকায় প্রতিষ্ঠিত ফায়ার সার্ভিস ও সির্ভিল ডিফেন্স ষ্টেশন পাঁচ বছরেও সম্পূর্ণ শেষ করতে পারিনি।

কক্সবাজার গণপূর্ত বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, এ উপজেলায় একটি ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশন প্রতিষ্ঠার জন্য ২০০৯ সালে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে একটি বরাদ্দ দেন। কক্সবাজার গণপূর্ত বিভাগের আওতায় এ ভবনটি নির্মাণের জন্য ঐ বছরের মার্চ মাসে গণপূর্ত বিভাগ দরপত্রের আহবান করলে সর্বনিচু দরদাতা হিসাবে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান শওকত কনক্টাশনকে কার্যাদেশ দেওয়া হয়। ২০১১-১২ অর্থ বছরে  ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশন ভবনের নির্মাণ কাজ শুরু হয়ে ঐ বছরের ১২ ডিসেম্বরে  আনুষ্টানিকভাবে নির্মাণ কাজ উদ্ধোধন করেন স্থানীয় সাংসদ।

গতকাল সোমবার সরজমিন নির্মাণাধীন ভবন প্রত্যক্ষ করে দেখা যায়, দ্বিতল ভবনের মূল অবকাঠামোর কাজ শেষ হলেও দরজা, জানালা, গ্রীল, গ্লাসসহ আনুসাংগিক কার্যক্রম অসম্পূর্ণ রয়েছে। তবে বাইরে চুনা কালি রং আগেই শেষে করতে দেখা গেছে।

গণপূর্ত বিভাগের কক্সবাজারের উপ-সহকারী প্রকৌশলী নিয়ামত এলাহীর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, টেকনাফ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স কাজ চলছে।

কক্সবাজারের উপ-পরিচালক কামাল উদ্দিন বলেন, নতুন ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশনের জন্য ১৪ জন কর্মচারী নিয়োগ দেওয়া হবে। তবে ভবন নির্মাণ কাজ শেষ না হওয়ায় জনবল সহ গাড়ী ও পানির পাম্প হস্তান্তর করা যাচ্ছেনা।

এদিকে তদারকির অভাব ও উদ্ধর্তন কর্তৃপক্ষের গাফলাতীর কারণে ফায়ার সার্ভিস ও সির্ভিল ডিফেন্স ষ্টেশনের নানান অভিযোগ মাথায় নিয়ে কাজ শেষের দিকে। বলা চলে পাহাড়ি পাথর ব্যবহার, নিম্নমানের রড ও ব্যবহার করা হয়েছে। এছাড়া ঢালাই কাজেও অনিয়মের কথা বলা হয়ে আসলে ও ঠিকাদারী প্রতিষ্টান তা বিন্দুমাত্র কর্ণপাত করেনি।

এ ব্যাপারে ঠিকাদারী প্রতিষ্টানের স্বত্তাধিকারী মোঃ আশেক উল্লাহর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বিষয়গুলো অস্বীকার করে আগামী ১৫দিনের মধ্যে কাজ সম্পূর্ণ হবে বলে জানান।

বাংলাসংবাদ২৪/নুর হাকিম আনোয়ার/এনএম

আরও সংবাদ