Widget by:Baiozid khan
শিরোনাম:

ঢাকা Wed April 21 2021 ,

  • Techno Haat Free Domain Offer

ধর্ষণ মামলায় চট্টগ্রামে ৫ আসামির মৃত্যুদণ্ড

Published:2013-06-30 21:10:01    

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে তরুণীকে অপহরণ করে ধর্ষণ মামলায় পাঁচজনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। রোববার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল -১ এর বিচারক মো: রেজাউল করিম এ আদেশ দেন।

ট্রাইব্যুনালের পিপি অ্যাডভোকেট চন্দন তালুকদার জানান, আসামিদের বিরুদ্ধে ১৯৯৫ সালের নারী নির্যাতন দমন বিশেষ আইনের ৬ (৩) ও ৯ (গ) ধারায় রাষ্ট্রপক্ষের আনা অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় তাদের সবাইকে সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- রশিদ আহমেদ, নুরুল আবছার, নাছির, কবির আহমেদ ও কেনু। এরা সবাই পলাতক রয়েছেন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ১৯৯৭ সালের ১১ এপ্রিল গভীর রাতে বাশখালীর এক তরুণীকে অপহরণ করে পাশের পাহাড়ে নিয়ে যায় আসামীরা। এ সময় ওই কিশোরীর মাকে ঘরের খুঁটির সঙ্গে দড়ি দিয়ে বেঁধে রাখে আসামিরা।
অপহরণের পর কিশোরীর মায়ের চিত্কারে প্রতিবেশী লোকজন জড়ো হয়ে আশপাশের এলাকায় খোঁজাখুঁজি শুরু করে। একপর্যায়ে পাশের পাহাড়ে আসামিদের অপহূত কিশোরীকে গণধর্ষণ করতে দেখেন স্থানীয় লোকজন। টর্চ বাতির আলো দেখে ধর্ষকেরা পাঁচজন পালিয়ে যায়, যাদের তাত্ক্ষণিকভাবে শনাক্ত করেন স্থানীয় লোকজন। পরে গুরুতর অবস্থায় কিশোরীকে উদ্ধার করে বাঁশখালী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে চট্টগ্রাম মেডিকেলে পাঠানো হয়।

এ ঘটনায় ধর্ষণের শিকার কিশোরীর মা বাদী হয়ে ১৯৯৭ সালের ১২ এপ্রিল বাঁশখালী থানায় একটি মামলা দায়ের করলে পুলিশ চার্জশিট দাখিল করে।

১৯৯৮ সালের ২৪ আগস্ট পাঁচ আসামির বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগ গঠন হয়। সাতজনের সাক্ষ্যের ভিত্তিতে আদালত আসামিদেরকে ১৯৯৫ সালের নারী নির্যাতন দমন বিশেষ আইনের ৬ (৩) ও ৯ (গ) ধারায় দোষী সাব্যস্ত করে সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড দেন।

রাষ্ট্রপক্ষে আনা সাতজন এবং আসামিপক্ষে চার জনসহ মোট ১১ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে রোববার আদালত এ রায় ঘোষণা করেন। বর্তমানে আসামিরা সবাই পলাতক আছেন বলে আদালত সূত্রে জানা গেছে।



বাংলাসংবাদ২৪/এনডি/বিএইচ

আরও সংবাদ