Widget by:Baiozid khan
শিরোনাম:

ঢাকা Mon May 17 2021 ,

  • Techno Haat Free Domain Offer

সরকারের কালো হাত গুটাতে আন্দোলন বেগবান করার আহ্বান বিএনপির

Published:2015-03-18 19:07:22    
সরকারের নির্যাতনের কালো হাত গুটাতে চলমান আন্দোলনকে আরও বেগবান করার আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও ২০ দলের মুখপাত্র বরকতউল্লাহ বুলু। ২০১৪ সালের ৫ই জানুয়ারি বর্তমান ক্ষমতাসীন সরকার গণতন্ত্রের কবর রচনা করেছিল। আজ তারা সেই কবরের ওপর দাঁড়িয়ে গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানসমূহ এবং বিরোধী দল-মতের জনগণকে কবরে পাঠাচ্ছে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্দীপ্ত হয়ে গণতন্ত্র, গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠান এবং মানুষ হত্যাকারী এই সরকারকে এখনই তার কালো হাত গুটাতে বাধ্য করতে আন্দোলনকে আরও বেগবান করার জন্য ২০ দলীয় জোটের নেতা-কর্মী এবং দেশের সকল গণতন্ত্রকামী ব্যক্তি, সংগঠন ও দলের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি। 
 
গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি এসব কথা বলেন। 
 
বিবৃতিতে বরকতউল্লাহ বুলু বলেন, বিরোধী দল ও মতের নেতাকর্মীদের খুন, গুম এবং মিথ্যা মামলায় গ্রেপ্তার ও হয়রানি করে সরকার চলমান আন্দোলনকে স্তব্ধ করার যে অপচেষ্টা চালাচ্ছে- তা সফল হবে না। নির্মম নিপীড়ন আন্দোলনকে সাময়িকভাবে স্থিমিত করতে পারলেও প্রকৃত পক্ষে তা বৃহত্তর আন্দোলনকে অনিবার্য করে থাকে। এটাই ইতিহাস-এটাই বাস্তবতা।  
 
তিনি বলেন, সাবেক এমপি বিএনপি নেতা ইলিয়াস আলী ও সাইফুল ইসলাম হিরু, ঢাকার নির্বাচিত কাউন্সিলর চৌধুরী আলম ও লাকসামের বিএনপি নেতা পারভেজের মতো শত শত বিরোধী নেতা-কর্মীকে গুম করেছে আওয়ামী লীগ সরকার। এবার সাবেক প্রতিমন্ত্রী ও বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সালাহউদ্দিন আহমেদকে সরকারি বাহিনী বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে গ্রেপ্তারের কথা অস্বীকার করছে। ইলিয়াস আলী পালিয়ে গেছে কিংবা সালাহউদ্দিন আহমেদ নিজেই আত্মগোপন করেছেন- এমন কাল্পনিক গল্প বলার পাশাপাশি সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায়ে থেকে এসব ঘটনা নিয়ে কা-জ্ঞানহীন নিষ্ঠুর রসিকতা করা হচ্ছে। এতে দায়িত্ব পালনে সরকারের অমার্জনীয় ব্যর্থতার পাশাপাশি বিকৃত মানসিকতার প্রমাণ পেয়ে দেশবাসী ক্ষুব্ধ ও ত্রুুদ্ধ হয়ে উঠছে।  
 
তিনি আরো বলেন, নির্বাচনের মাধ্যমে দেয়া জনগণের রায় অগ্রাহ্য করার জন্য সরকার গাজীপুর, সিলেট ও রাজশাহীসহ অসংখ্য সিটি কর্পোরেশন/পৌরসভার নির্বাচিত মেয়র এবং উপজেলা চেয়ারম্যানদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে আটক করে কিংবা গ্রেপ্তার ও রিমান্ডের নামে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন থেকে বাঁচার জন্য আত্মগোপনে থাকতে বাধ্য করে তাদের স্থলে দলীয় লোকদের বসানো শুরু করেছে। এমন অপকৌশলের মাধ্যমে জনগণের সিদ্ধান্ত পাল্টে দেয়ার ফলে আজ সারা দেশের মানুষের কাছে এটা দিবালোকের মতো স্পষ্ট হয়েছে যে বর্তমান ক্ষমতাসীন সরকার গণতন্ত্র মানে না, গণরায়ের পরোয়া করে না।
 
 
বাংলাসংবাদ২৪/জেএইচ

আরও সংবাদ